default-image

কয়েদি আবু বকর সিদ্দিক কাশিমপুর-২ কারাগার থেকে পালিয়ে গেছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় লকআপের পর থেকে খোঁজাখুঁজি করেও তাঁকে কারাগারের ভেতরে কোথাও পাওয়া যায়নি। তাঁকে খুঁজে না পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কাশিমপুর কারাগারের তত্ত্বাবধায়ক জাহানারা বেগম। তিনি বলেন, ‘এ ঘটনায় কারারক্ষীরা জড়িত থাকতে পারে বা তাদের অবহেলার কারণেও বন্দী পালিয়ে যেতে পারে। আমরা তদন্ত করে দোষী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব।’

আবু বকর সিদ্দিক ২০১১ সালে রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে এসেছিলেন ফাঁসির আসামি হিসেবে। ২০১২ সালের ২৭ জুলাই তাঁর সাজা সংশোধন করে তাঁকে যাবজ্জীবন দেওয়া হয়। কাশিমপুর কারাগার সূত্রে জানা গেছে, আবু বকর সিদ্দিকের বাড়ি সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার আবাদ চণ্ডীপুরে।

কাশিমপুরের কারাগারের একজন কর্মকর্তা জানান, ২০১৫ সালের ১৩ মে সন্ধ্যায়ও তিনি আত্মগোপন করে সেল এলাকায় সেপটিক ট্যাংকের ভেতরে লুকিয়ে ছিলেন। অনেক খোঁজাখুঁজি শেষে পরদিন তাঁকে একটি ট্যাংকের ভেতর থেকে উদ্ধার করা হয়।

জাহানারা বেগম বলেন, আবু বকর সিদ্দিক জেলের ১৮ ফুট দেয়াল বেয়ে চলে গেছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। সাতক্ষীয়ার তাঁর বাড়িতে লোক গেছে। সংশ্লিষ্ট জেলার পুলিশকেও বিষয়টি অবহিত করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0