রাজধানীর শ্যামপুর থানা এলাকায় গতকাল শুক্রবার বিকেলে অভিযানে গিয়ে মো. জিদান (১৫) নামের এক কিশোরের মাথায় পুলিশ পিস্তলের বাঁট দিয়ে আঘাত করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। আহত জিদানকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
চিকিৎসাধীন জিদান হাসপাতালে সাংবাদিকদের জানায়, তার বাসা শ্যামপুরে। পোস্তগোলার একটি স্কুলের নবম শ্রেিণর ছাত্র সে। বাসাও একই এলাকায়। তাঁর বড় ভাই যুবদলের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। বিকেল পাঁচটার দিকে দুটি মোটরসাইকেলে চারজন পুলিশ তাঁর ভাইকে আটক করতে বাসার আশপাশে টহল দিতে থাকে। এটি দেখে সে (জিদান) দৌড়ে বাসার দিকে যেতেই পুলিশ আটকে ফেলে তাকে। তখন স্থানীয় কিছু লোক এগিয়ে এসে পুলিশের বিরুদ্ধে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানান। একপর্যায়ে পুলিশ ফাঁকা গুলি ছুড়তে থাকে। এরই মধ্যে এক পুলিশ সদস্য পিস্তলের বাঁট দিয়ে তার মাথায় আঘাত করলে সে গুরুতর আহত হয়।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে শ্যামপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নূরে আযম দাবি করেন, ওই এলাকায় পুলিশের নিয়মিত অভিযান চলছিল। অভিযান দেখে ভয় পেয়ে দৌড়ে চলে যাওয়ার সময় জিদান পড়ে গিয়ে আহত হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন