default-image

কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের ২৫ নম্বর ওয়ার্ডের চৌয়ারা এলাকার বাসিন্দা ও আওয়ামী লীগের নেতা জিল্লুর রহমান চৌধুরী ওরফে গোলাম জিলানী হত্যার ঘটনায় আজ বৃহস্পতিবার সকালে সদর দক্ষিণ মডেল থানায় হত্যা মামলা হয়েছে। নিহত জিল্লুরের ছোট ভাই ইমাম হোসেন চৌধুরী বাদী হয়ে মামলাটি করেন।

মামলায় কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের ২৭ নম্বর ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগের দলীয় কাউন্সিলর মো. আবুল হাসানকে (৪০) প্রধান আসামি করা হয়। এ মামলায় হাসানসহ ২৪ জনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে। অজ্ঞাতনামা আরও ১০ থেকে ১৫ জনকে আসামি করা হয়।

সদর দক্ষিণ মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) কমল ধর বলেন, ‘বৃহস্পতিবার সকালে নিহত জিল্লুরের ছোট ভাই বাদী হয়ে মামলা করেন। মামলায় কাউন্সিলর হাসানকে প্রধান আসামি করা হয়। আমরা বিষয়টি তদন্ত করে দেখছি। একই সঙ্গে এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িতদের শনাক্ত করে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।’

বিজ্ঞাপন

অভিযোগের বিষয়ে জানতে কাউন্সিলর মো. আবুল হাসানের মুঠোফোনে আজ সকালে কল করা হলে সেটি বন্ধ পাওয়া যায়।

গতকাল বুধবার সকাল সাড়ে সাতটায় কুমিল্লার পুরান চৌয়ারা বাজারে হেলাল স্টোরের সামনে একদল দুর্বৃত্ত জিল্লুর রহমান চৌধুরীকে কুপিয়ে জখম করে। এরপর কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসকেরা তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

২০১৭ সালের ৩০ মার্চ অনুষ্ঠিত কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ২৫ নম্বর ওয়ার্ড থেকে কাউন্সিলর পদে নির্বাচন করে জিল্লুর রহমান চৌধুরী তৃতীয় হন। তিনি কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি। এ ছাড়া তিনি কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা যুবলীগের প্রস্তাবিত কমিটির সদস্য পদে আছেন। কাউন্সিলর হাসানের সঙ্গে চৌয়ারা গরু বাজার ইজারা নিয়ে দ্বন্দ্ব এবং রাজনৈতিক আধিপত্য নিয়ে বিরোধ ছিল জিল্লুরের।

মন্তব্য পড়ুন 0