খুলনার মাদ্রাসাছাত্র মুসা হত্যা মামলার রায় বুধবার ঘোষণা করা হয়েছে। রায়ের পর আসামিদের আদালত থেকে কারাগারে নেওয়া হয়
খুলনার মাদ্রাসাছাত্র মুসা হত্যা মামলার রায় বুধবার ঘোষণা করা হয়েছে। রায়ের পর আসামিদের আদালত থেকে কারাগারে নেওয়া হয়ছবি: সংগৃহীত

খুলনার রূপসা উপজেলার ইলাইপুর গ্রামের মাদ্রাসাছাত্র মুসা শিকদার (১৬) হত্যা মামলায় চারজনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এ ছাড়া প্রত্যেককে ২৫ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

কিশোর মুসাকে অপহরণের দায়ে এই চার আসামিকে ১০ বছর করে সশ্রম কারাদণ্ড এবং ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে। জরিমানা অনাদায়ে তাঁদের এক বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। তবে ওই মামলা থেকে খালাস পেয়েছেন দুজন।

বুধবার দুপুর ১২টার দিকে খুলনা জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. মশিউর রহমান চৌধুরী এই রায় ঘোষণা করেন। রায় ঘোষণার সময় সব আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

বিজ্ঞাপন

এই চারজন হলেন বনি আমিন শিকদার, রাহিন শেখ, রাজু শেখ ও নুহু শেখ। এ মামলায় খালাস পেয়েছেন সিরাজ শিকদার ও জসিম শিকদার। রায় ঘোষণার পর সাজাপ্রাপ্ত ৪ আসামিকে আদালত থেকে কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়।

বিজ্ঞাপন

আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০১৮ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর রাতে বাড়ি থেকে খাবার খেয়ে মুসা পাশে তাদের মুদির দোকানে ঘুমাতে যায়। সকালে বাড়ি না ফেরায় খোঁজখবর শুরু করেন পরিবারের সদস্যরা। সকাল ১০টার দিকে ওই উপজেলার আঠারোবেকী নদী থেকে পুলিশ মুসা শিকদারের লাশ উদ্ধার করে। মুদি দোকানে বাকি খাওয়াকে কেন্দ্র করে বিরোধের জের ধরে মুসাকে আসামিরা শ্বাসরোধ করে হত্যার পর মরদেহ নদীতে ফেলে দিয়েছিল।

এ ঘটনায় নিহতের বাবা মুস্তাকিম শিকদার ২৭ সেপ্টেম্বর আদালতে অভিযোগ দায়ের করেন। আদালতের নির্দেশে ২০১৯ সালের ১৫ জানুয়ারি রূপসা থানায় হত্যা মামলা রেকর্ড হয়। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গোয়েন্দা পুলিশের উপপরিদর্শক মুক্ত রায় চৌধুরী ৬ জনকে আসামি করে ২০১৯ সালের ৩০ মে আদালতে অভিযোগপত্র দেন। মামলায় মোট ২৪ জনের মধ্যে ২৩ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করে বুধবার রায় ঘোষণা করেন আদালত।

মন্তব্য পড়ুন 0