গাজীপুরে সিটি হাসপাতালকে সাড়ে ৭ লাখ টাকা জরিমানা

বিজ্ঞাপন
default-image

নানা অনিয়ম ও অব্যবস্থাপনার অভিযোগে গাজীপুরের চান্দনা চৌরাস্তা এলাকায় সিটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে অভিযান চালানো হয়েছে। অভিযানে বিপুল পরিমাণ মেয়াদোত্তীর্ণ সার্জিক্যাল সামগ্রী ব্যবহার করার অপরাধে প্রতিষ্ঠানটিকে সাড়ে সাত লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। সোমবার বেলা পৌনে একটা থেকে অভিযান শুরু করে শেষ হয় বিকেল চারটায়।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় গঠিত টাস্কফোর্স র‍্যাবের সহায়তায় এই অভিযান পরিচালনা করে। অভিযানে নেতৃত্ব দেন র‍্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলম। অভিযানে অন্যদের মধ্যে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব (হাসপাতাল) উম্মে সালমা তানজিয়া ও গাজীপুর র‍্যাব-১-এর কমান্ডার আবদুল্লাহ আল মামুন উপস্থিত ছিলেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলম বলেন, সিটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের লাইসেন্স নেই। অপারেশন থিয়েটার থেকে বিপুল পরিমাণ মেয়াদোত্তীর্ণ সার্জিক্যাল সামগ্রী জব্দ করা হয়েছে। মন্ত্রণালয় যেহেতু ২৩ আগস্ট পর্যন্ত লাইসেন্স নবায়নের সময় দিয়েছে, তাই এখনই হাসপাতালটিকে সিলগালা করা হচ্ছে না। তবে এই সময়ের মধ্যে যদি নবায়ন না হয়, সে ক্ষেত্রে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। করোনা পরীক্ষার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, তারা হয়তো আগে করেছিল, তবে এখন আর করছে না বা পরীক্ষা করার কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি। তবে অপারেশন থিয়েটারে মেয়াদোত্তীর্ণ সার্জিক্যাল সামগ্রী ব্যবহার করা এবং বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগে সাড়ে সাত লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

ভ্রাম্যমাণ আদালতসংশ্লিষ্ট সূত্র বলছে, অভিযানের বিষয়টি টের পেয়ে হাসপাতালটির বেশ কিছু কর্মকর্তা পালিয়ে গেছেন। এ সময় ল্যাবে থাকা দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তিরা প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দেখাতে পারেননি। একই সঙ্গে সেখানে অপারেশনের কাজে ব্যবহৃত মেয়াদোত্তীর্ণ বিপুল পরিমাণ সার্জিক্যাল সামগ্রী জব্দ করা হয়েছে। জব্দ করা সার্জিক্যাল সামগ্রীর মধ্যে কিছু পাওয়া গেছে যেগুলোর মেয়াদ ২০১৪ সালে ও ২০১৭ সালে উত্তীর্ণ হয়ে গেছে।

অপর এক অভিযানে গাজীপুরের চান্দনা এলাকায় সেবা জেনারেল হাসপাতালকে সাড়ে তিন লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এই হাসপাতাল থেকেও মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ ও সার্জিক্যাল সামগ্রী জব্দ করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন