ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলায় পূর্ববিরোধের জের ধরে নুরুজ্জামান জনি (৩০) নামের এক যুবককে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল শুক্রবার রাতে উপজেলার মাওহা ইউনিয়নের নওহাটা বাজারে এ ঘটনা ঘটে বলে নিশ্চিত করেছেন গৌরীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল্লাহ আল মামুন।

নিহত নুরুজ্জামান জনির বাড়ি গৌরীপুর উপজেলার কুমরি গ্রামে। তিনি মৃত সিদ্দিক মাস্টারের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, একই এলাকার নুরু মিয়া নামের এক ব্যক্তিকে মাদক ব্যবসায় বাধা দিতেন নুরুজ্জামান। এ নিয়ে নুরু ও নুরুজ্জামানের মধ্যে বিরোধ ছিল। নুরু মিয়া মাদকের মামলায় একাধিকবার গ্রেপ্তার হয়েছেন। সর্বশেষ ২০১৮ সালের নভেম্বর মাসে গ্রেপ্তার হন তিনি। পরবর্তী সময়ে জামিনে ছাড়া পেয়ে নুরু গ্রামে প্রচার করতে থাকেন, নুরুজ্জামান পুলিশকে মিথ্যা তথ্য দিয়ে তাঁকে (নুরু) গ্রেপ্তার করান। এ নিয়ে তাঁদের বিরোধ আরও বাড়ে। এ বছরের মার্চ মাসে নুরু নুরুজ্জামানের নামে গৌরীপুর থানায় একটি মামলা করেন।

গতকাল রাত আটটার দিকে নুরুজ্জামান নওহাটা বাজারে যান। সেখানে তাঁকে রামদা দিয়ে কুপিয়ে মারাত্মক জখম করা হয়। পরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত ১২টার দিকে তিনি মারা যান। নুরুজ্জামানের মৃত্যুর খবর পেয়ে এলাকাবাসী হত্যাকারী সন্দেহে কয়েকটি বাড়িতে ভাঙচুর করে।

গৌরীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, এ ঘটনায় এখনো মামলা হয়নি। পুলিশ হত্যাকারীদের শনাক্ত করে গ্রেপ্তারের চেষ্টা ‍করছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন