বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

র‍্যাব-৭ চট্টগ্রামের সহকারী পরিচালক নুরুল আবসার আজ দুপুরে মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেন, বিআরটিএর কার্যালয়ে দালালদের মাধ্যমে গ্রাহক হয়রানির শিকার হচ্ছেন বলে অভিযোগ পাওয়া যায়। এ অভিযোগের ভিত্তিতে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট লিটন চৌধুরীর নেতৃত্বে র‍্যাব-৭ অভিযান শুরু করে। অভিযান চালিয়ে ৩২ জনকে আটক করা হয়। যাচাই–বাছাই শেষে ১০ জনকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

নুরুল আবসার জানান, পরে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট লিটন চৌধুরীর ভ্রাম্যমাণ আদালত আটক ২১ জনের মধ্যে ১ জনকে ৩ দিনের কারাদণ্ড দেন। বাকি ২০ জনকে মোট ১ লাখ ৬০ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

র‍্যাব-৭ জানায়, আটক ব্যক্তিদের কাছ থেকে অর্থ ও বিভিন্ন কাগজপত্র উদ্ধার করা হয়।

র‍্যাব-৭ চট্টগ্রামের সহকারী পরিচালক নুরুল আবসার বলেন, ড্রাইভিং লাইসেন্স, রুট পারমিটসহ বিভিন্ন কাজ করতে আসা গ্রাহকদের কাছ থেকে সরকারনির্ধারিত টাকার বাইরে বাড়তি টাকা নেওয়ার কথা স্বীকার করেছেন আটক দালালেরা।

অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন