default-image

চলন্ত ট্রেনে অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়ে টাকাপয়সা ও মুঠোফোন খুইয়েছেন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) এক ছাত্র। সোমবার রাতে ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম যাওয়ার পথে চলন্ত ট্রেনে এ ঘটনা ঘটে।

অজ্ঞান পার্টির কবলে পড়া বুয়েট ছাত্রের নাম নয়ন চন্দ্র শীল (২১)। তিনি বুয়েটের নেভাল আর্কিটেকচার অ্যান্ড মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র। তিনি রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার বাসিন্দা নির্মল চন্দ্র শীলের ছেলে। একই ঘটনায় তাঁর সঙ্গে থাকা বন্ধু রাকিবুল ইসলামও (২১) আহত হন। তাঁরা তাঁদের বন্ধু চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র মাহমুদুল হাসানের কাছে বেড়াতে যাচ্ছিলেন।

খবর পেয়ে মঙ্গলবার সকাল সাড়ে সাতটার দিকে সীতাকুণ্ড রেল পুলিশ তাঁদের উদ্ধার করে প্রথমে সীতাকুণ্ড উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে ভর্তি করে। সীতাকুণ্ড উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক রাজিয়া আফরিন প্রথম আলোকে বলেন, ওই দুই ছাত্রের শরীরে নেশাজাতীয় পদার্থের উপস্থিতি ছিল। তাঁরা ঠিকভাবে কথাবার্তা বলতে পারছিলেন না। ঠিকমতো দাঁড়াতেও পারছিলেন না। তাঁদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে চমেকে পাঠানো হয়েছে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে সীতাকুণ্ড রেলস্টেশনের মাস্টার মতিলাল বড়ুয়া প্রথম আলোকে বলেন, ওই দুই ছাত্র ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম মেইল ট্রেনে করে চট্টগ্রামের দিকে যাচ্ছিলেন। তাঁদের অবস্থা দেখে অন্য যাত্রীরা তাঁদের সীতাকুণ্ড স্টেশনে নামিয়ে দেন।

সীতাকুণ্ড রেল পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা উপপরিদর্শক আরব আলী প্রথম আলোকে বলেন, কমলাপুর থেকে ওই দুই ছাত্র ট্রেনে উঠেছিলেন। গভীর রাতে ট্রেনটি আখাউড়া পৌঁছালে তাঁদের ঘুম পায়। এ সময় অজ্ঞান পার্টি চক্র তাঁদের নাকে নেশাজাতীয় কিছু লাগিয়ে অজ্ঞান করে।

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন