default-image

চাঁদপুরের কচুয়ায় জান্নাতুল নাঈম মিশু (১৪) নামে নবম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে। গতকাল রোববার কচুয়া উপজেলার ৯নং কড়ইয়া ইউনিয়নের একটি খাল থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ ও স্থানীয় লোকজন জানায়, উপজেলার এম এ খালেক মেমোরিয়াল হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণির ছাত্রী জান্নাতুল গত শুক্রবার দুপুরে বাড়ির পাশে ঘাস কাটতে যায়। কিন্তু বাড়িতে না ফেরায় বাড়ির লোকজন তাকে খোঁজাখুঁজি শুরু করে। শেষ পর্যন্ত ঘাস কাটার জায়গায় গিয়ে ওড়না ও কাস্তে দেখতে পাওয়া যায়। কিন্তু আশপাশে অনেক খোঁজাখুঁজি করেও জান্নাতুলকে পাওয়া যায়নি। এ ঘটনায় কচুয়া থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়। নিখোঁজের দুই দিন পর বাড়ির কাছেই একটি খালে জান্নাতুলের লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশ সেটি উদ্ধার করে।

এ ঘটনার পর এলাকাবাসী দফায় দফায় মানববন্ধন এবং বিক্ষোভ মিছিল করেন। জান্নাতুলের স্বজনদের দাবি, তাকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে। স্থানীয় কড়ইয়া ইউনিয়ন পরিষেদর চেয়ারম্যান আহসান হাবিব জুয়েলসহ এলাকাবাসী আসামিদের দ্রুত গ্রেপ্তার করে বিচারের আওতায় আনার দাবি জানান।

কচুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওয়ালিউল্লাহ অলি বলেন, ‘আমরা লাশটি উদ্ধার করে সুরতহাল শেষে আজ সোমবার ময়নাতদন্তের জন্য চাঁদপুর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছি।’ এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

হাসপাতালের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন চিকিৎসক বলেন, ‘আমরা ময়নাতদন্তে ওই ছাত্রীকে ধর্ষণের আলামত পেয়েছি।’

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন