মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার রামনগর গ্রামে আরবিজিএম মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবু বক্কর সিদ্দিকী গতকাল শনিবার ১০ জন ছাত্রকে পিটিয়ে আহত করেছেন। অভিযোগ উঠেছে, তাঁর কাছে প্রাইভেট না পড়ার কারণে ছাত্রদের পিটিয়েছেন তিনি।
স্থানীয় আলশেফা ক্লিনিকের ব্যবস্থাপক জাহাঙ্গীর আলম জানান, আহত ছাত্রদের মধ্যে রাকিবুল ইসলাম ও সাদ্দাম হোসেনকে ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে। অন্যদের প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।
আহত রকিবুল ইসলাম অভিযোগ করেন, তাঁদের ক্লাসের অধিকাংশ ছাত্র ওই শিক্ষকের কাছে ইংরেজি বিষয়ের প্রাইভেট পড়ে। সেসহ ১০ জন অন্য স্কুলের এক শিক্ষকের কাছে ওই বিষয়ে প্রাইভেট পড়ে। এতে প্রধান শিক্ষক ক্ষুব্ধ হয়ে বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে জাতীয় সংগীত ও শারীরিক কসরত (অ্যাসেম্বলি) চলার সময় সবার সামনে তাদের লাঠিপেটা করেন।
আরেক ছাত্র সাদ্দাম হোসেনের অভিভাবক সিদ্দিক আলী বলেন, ওই শিক্ষকের কাছে প্রাইভেট না পড়ার অপরাধে তাঁর নাতিসহ বাকিদের পেটানো হয়েছে।
অভিযোগ অস্বীকার করে প্রধান শিক্ষক আবু বক্কর সিদ্দিকী বলেন, তাঁর কাছে প্রাইভেট না পড়ার জন্য কোনো ছাত্রকে পেটানো হয়নি। ওই সব ছেলে স্কুল ফাঁকি দেয়। নিয়মিত স্কুলে আসে না। তাই তাদের সামান্য পেটানো হয়েছে।
ইউএনও আবুল আমিন জানান, অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নিতে তিনি উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে নির্দেশ দিয়েছেন।
গাংনী উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মনিরুল ইসলাম জানান, ইউএনওর নির্দেশ অনুযায়ী তদন্ত করে অভিযুক্ত ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন