জমি বণ্টন হলো না, খুন হলেন বড় ভাই

বিজ্ঞাপন
default-image

দিনাজপুরে বৃহস্পতিবার সকালে চাকু দিয়ে আঘাত করে এক ব্যক্তিকে হত্যা করা হয়েছে। বাবার মৃত্যুর পর পারিবারিক সম্পত্তি ভাগ নিয়ে বিরোধের জেরে ছোট ভাইয়ের হাতে তিনি খুন হয়েছেন বলে অভিযোগ। ঘটনার পর থেকে ছোট ভাই পলাতক।

নিহত ব্যক্তির নাম আবদুস সালাম (৫৩)। বাড়ি দিনাজপুর সদর উপজেলার আউলিয়াপুর ইউনিয়নের পুলহাট হামজাপুর গ্রামে। বাবার নাম মৃত বদু মোহাম্মদ।

আবদুস সালামের ছেলে ফাতাউদ জামান বলেন, তাঁর দাদা বদু মোহাম্মদ সম্প্রতি মারা যান। তাঁর রেখে যাওয়া জমিজমা ভাগ-বাঁটোয়ারা করতে বুধবার রাতে বৈঠকে বসেন পাঁচ মেয়ে ও চার ছেলে। প্রতিবেশী এক ব্যক্তির বাড়িতে ওই বৈঠক চলছিল। বৈঠকে সুষ্ঠু সমাধান না হওয়ার অভিযোগ তোলেন ছোট ছেলে ফরিদুল ইসলাম। তিনি উত্তেজিত হয়ে বোনদের মারতে উদ্যত হন। এ অবস্থায় বৈঠক পণ্ড হয়ে যায়। বৃহস্পতিবার সকালে বাড়ি থেকে বের হন বড় ছেলে আবদুস সালাম। এ সময় প্রথমে তাঁকে হাঁসুয়া দিয়ে আঘাত করেন ফরিদুল। পরে তাঁর পেটে চাকু ঢুকিয়ে দেন। গুরুতর আহত অবস্থায় আবদুস সালামকে দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

পরিবার সূত্রে জানা গেছে, খুনের অভিযোগ ওঠা ফরিদুল শেরপুরে থাকেন। সেখানে তিনি একটি অটোরাইস মিলে কাজ করেন। ঈদের কয়েক দিন আগে স্ত্রীকে সঙ্গে নিয়ে গ্রামের বাড়িতে আসেন ফরিদুল। এরপরই এ ঘটনা ঘটল।

দিনাজপুর কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোজাফফর আহমেদ বলেন, জমিজমা নিয়ে পারিবারিক বিরোধের জেরে এই খুনের ঘটনা ঘটেছে বলে তাঁরা জানতে পেরেছেন। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। থানায় একটি হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে। ঘটনার পর থেকে পলাতক ফরিদুল ইসলাম।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন