বিজ্ঞাপন

দিনাজপুরের চিরিরবন্দর উপজেলার অমরপুর ইউনিয়নের ডাঙ্গাপাড়া গ্রামে আজ শনিবার সকালে এ ঘটনা ঘটেছে। নিহত তাজমুল ইসলাম একই গ্রামের অফুর উদ্দিনের ছেলে। তিনি নির্মাণশ্রমিকের কাজ করতেন। খবর পেয়ে চিরিরবন্দর থানা-পুলিশ দুই নারীসহ ছয়জনকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। দুপুরে নিহত ব্যক্তির স্ত্রী বাদী হয়ে ওই ছয়জনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা করেছেন। পরে তাঁদের ওই মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে তোলা হয়।

গ্রেপ্তার হওয়া ব্যক্তিরা হলেন মঈনুল ইসলাম (৫৫), শাহানাজ বেগম (৪৫), সিরাজুল ইসলাম (৩২), শামীম মিয়া (২৫), শাহজাহান আলী (৩০) ও মমতাজ বেগম (২৪)।
চিরিরবন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুব্রত কুমার সরকার বলেন, পারিবারিক কলহের জেরে হাতাহাতির ঘটনার সূত্রপাত। ভাইদের ঝগড়া থামাতে গিয়ে প্রতিবেশী তাজমুলের মাথায় আঘাত লাগে। স্থানীয় লোকজন উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় তাজমুলের স্ত্রী বাদী হয়ে হত্যা মামলা করেছেন। মঈনুলের পরিবারের ৬ জনকে গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন