টেকনাফে ডাকাতের ছুরিকাঘাতে ৬ রোহিঙ্গা যুবক আহত

বিজ্ঞাপন
default-image

কক্সবাজারের টেকনাফে জাদিমোরা শালবাগান রোহিঙ্গা শরণার্থীশিবিরে রোহিঙ্গা ডাকাতের ছুরিকাঘাতে ছয় রোহিঙ্গা যুবক আহত হয়েছেন। আজ বৃহস্পতিবার বেলা আড়াইটার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

আহত ছয়জন হলেন সেলিমের ছেলে রফিক (২১), সায়েদের ছেলে জুবায়ের (১৮), আবদুর রাজ্জাকের ছেলে ওয়াহিদ উল্লাহ (১৮), সাঈদের ছেলে রুবেল (২০), আলী হোসেনের ছেলে মোবারক হোসেন (২০) ও আলীর জোহারের ছেলে হামিদ (১৮)। তাঁরা লেদা রোহিঙ্গা শরণার্থীশিবিরের সি ও ডি ব্লকের বাসিন্দা বলে জানা গেছে।

ছুরিকাঘাতের ঘটনার তথ্য প্রথম আলোকে নিশ্চিত করেছেন লেদা রোহিঙ্গা শরণার্থীশিবিরের ব্যবস্থাপনা কমিটির চেয়ারম্যান আলম।

প্রত্যক্ষদর্শী রোহিঙ্গা ও পুলিশ সূত্র জানায়, বেলা আড়াইটার দিকে লেদা রোহিঙ্গা শরণার্থীশিবিরের ছয় যুবক একটি অটোরিকশায় করে রোহিঙ্গা শরণার্থীশিবির (ক্যাম্প-২৬) শালবাগান এলাকায় ঘুরতে যান। এ সময় অজ্ঞাতনামা রোহিঙ্গা ডাকাতেরা তাঁদের আটকে রেখে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করে সঙ্গে থাকা টাকা ও মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নিয়ে পাহাড়ে চলে যায়। আহত রোহিঙ্গা নাগরিকদের স্থানীয় ব্যক্তিরা উদ্ধার করে লেদা আইওএম পরিচালিত স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যান। বর্তমানে তাঁরা সেখানে চিকিৎসাধীন।

লেদা রোহিঙ্গা শরণার্থীশিবির ব্যবস্থাপনা কমিটির চেয়ারম্যান (রোহিঙ্গা দলনেতা) মোহাম্মদ আলম বলেন, জাদিমোরা শালবাগান রোহিঙ্গা শরণার্থীশিবিরটিতে সন্ত্রাসী ও ডাকাতের আস্তানা। কিছুদিন আগেও র‍্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধের ঘটনায় সাত ডাকাত নিহত হয়েছিল। এসব ডাকাতের কারণে রোহিঙ্গাদের বদনাম হচ্ছে।

নয়াপাড়া রোহিঙ্গা শরণার্থীশিবিরের পুলিশ ফাঁড়ির উপপরিদর্শক (এসআই) মনির হোসেন বলেন, আহত যুবকেরা আইওএম স্বাস্থ্যকেন্দ্রে চিকিৎসাধীন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন