চুয়াডাঙ্গার দর্শনায় কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উদ্ভিদ সংগনিরোধ কেন্দ্রের কার্যালয় ও পরীক্ষাগার ভবন নির্মাণে রডের বদলে বাঁশ ব্যবহারের মামলার প্রধান আসামি ও ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান জয় ইন্টারন্যাশনালের মালিক মনি সিংকে (৪৫) গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
র্যা পিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র্যা ব) ও দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) কুষ্টিয়া সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের যৌথ দল রাজধানীর মিরপুর পল্লবী বটতলা এলাকার একটি বাসা থেকে গতকাল শুক্রবার সকালে তাঁকে গ্রেপ্তার করে বিকেলে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম (সিএমএম) আদালতে হাজির করা হয়। বিচারক ইমদাদুল হক তাঁকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও দুদকের উপপরিচালক মো. আবদুল গাফফার বলেন, মনি সিংয়ের স্ত্রীর বান্ধবীর বাসা থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়।
সরকারি অর্থায়নে দর্শনা পৌরসভার পেছনে প্রায় এক বিঘা জমির ওপর ২ কোটি ৪২ লাখ টাকা ব্যয়ে দ্বিতল ভবন নির্মাণে লোহার রডের বদলে বাঁশ ব্যবহার করছিলেন ঠিকাদার। গত ডিসেম্বরে নির্মাণ শুরু হওয়া ভবনটি আগামী জুনে শেষ হওয়ার কথা রয়েছে।
নির্মাণাধীন ওই ভবনে রডের বদলে বাঁশ ছাড়াও খোয়ার পরিবর্তে পরিত্যক্ত সুরকিসহ নিম্নমানের উপকরণ ব্যবহার করা হয়। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের একটি প্রতিনিধিদল ৭ এপ্রিল সরেজমিনে পরিদর্শন করে অভিযোগের সত্যতা পায়।
এ ঘটনায় ১১ এপ্রিল দামুড়হুদা থানায় একটি মামলা করা হয়। মামলায় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান জয় ইন্টারন্যাশনালের মালিক মনি সিং, পরামর্শক প্রতিষ্ঠান ইঞ্জিনিয়ারিং কনসোর্টিয়াম লিমিটেডের (ইসিএল) ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবদুস সাত্তার, প্রকল্পের ক্রয় বিশেষজ্ঞ মো. আইয়ুব হোসেন ও কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপসহকারী পরিচালক মো. কামাল হোসেনকে আসামি করা হয়।

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন