ফরিদপুরে ডাকাত সন্দেহে গণপিটুনিতে এক ব্যক্তি নিহত ও একজন আহত হয়েছেন। গত শনিবার সদরের আলীয়াবাদ ইউনিয়নের হরির বটতলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
নিহত ব্যক্তির নাম মাসুম মৃধা (২৮)। তাঁর বাড়ি ফরিদপুর সদরের হাড়োকান্দি এলাকায়। আহত দেলোয়ার হোসেন (২৫) ফরিদপুর শহরের চর কমলাপুর এলাকার বাসিন্দা।
প্রত্যক্ষদর্শী কয়েকজন জানান, এলাকায় চুরি-ডাকাতি বেড়ে যাওয়ায় এলাকাবাসী দলবদ্ধ হয়ে পাহারার ব্যবস্থা করেন। শনিবার একটি অ্যাম্বুলেন্সে করে কয়েকজন ব্যক্তি ওই এলাকার হাকিম বিশ্বাসের বাড়িতে ডাকাতির চেষ্টা করেন। পরে তাঁরা আনুমানিক দেড় কিলোমিটার দূরে হরির বটতলা এলাকায় মোল্লাবাড়িতে ডাকাতির চেষ্টা করেন। এ সময় এলাকার টহলরত ২০-২৫ জন ব্যক্তি তাঁদের ধাওয়া করলে তাঁরা অ্যাম্বুলেন্সে করে পালানোর চেষ্টা করেন।
এ সময় গ্রামবাসী দুজনকে আটক করেন। পরে তাঁরা মাসুম ও দেলোয়ারকে পিটুনি দেন। এ ছাড়া তাঁদের ব্যবহৃত অ্যাম্বুলেন্সটি পুড়িয়ে দেন।
খবর পেয়ে কোতোয়ালি থানার পুলিশ তাঁদের উদ্ধার করে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়।
হাসপাতালের সার্জারি বিভাগের প্রধান রতন সাহা বলেন, হাসপাতালে মাসুম মারা যান। দেলোয়ারের দুই হাত ভেঙে ফেলা হয়েছে, পায়ের রগ কেটে দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন জায়গায় আঘাতের ফলে প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়েছে।
ফরিদপুর কোতোয়ালি থানার উপপরিদর্শক (এসআই) এ টি এম আমিনুল ইসলাম বলেন, প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে, ওই ব্যক্তিরা ডাকাতি করতে গিয়ে গণপিটুনির শিকার হন। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন