default-image

বান্দরবানে রুমা-মুননুয়ামপাড়া সড়কে অপহৃত তিন গাড়িচালকের মুক্তির জন্য ৯ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করেছে অপহরণকারীরা। মঙ্গলবার এই মুক্তিপণ দাবি করা হয়। এর আগে সোমবার বিকেলে রুমা উপজেলার মিনঝিরি রাস্তার মাথা থেকে তাঁদের অপহরণ করা হয়।

রুমা উপজেলা পরিবহন মালিক সমিতির নেতারা জানান, মগ লিবারেশন পার্টি (এমএলপি) নামধারী আরাকান লিবারেশন পার্টির (এএলপি) সদস্যরা অপহৃত লোকজনের মুঠোফোন থেকে ৯ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করেছে। এমএলপি নামধারী এএলপিরা গত ৫ আগস্ট পরিবহন মালিক সমিতির কাছে ৩০ লাখ টাকা চাঁদার দাবিতে চিঠি দিয়েছে। চিঠিতে রুমা-মুননুয়ামপাড়া ও রুমা-বগালেক-তাজিংডং সড়কসহ রুমা উপজেলার সড়কগুলোতে যানবাহন চলাচলের এক বছরের জন্য ওই চাঁদা দাবি করা হয়। পরিবহন মালিক সমিতি চাঁদা দিতে রাজি না হওয়ায় এবং তাদের সঙ্গে যোগাযোগ না করায় ওই তিন গাড়িচালককে অপহরণ করা হয়েছে বলে এমএলপি মুঠোফোনে জানিয়েছে।

পরিবহন মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক খলিলুর রহমান বলেন, সকাল থেকে কয়েকবার অপহরণকারীরা ফোন করেছে। প্রথমে তারা তিন চালকের জন্য ১০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। বেলা সাড়ে তিনটার দিকে ৯ লাখ টাকা দাবি করে তারা। অপহৃত ব্যক্তিদের মুঠোফোন থেকে তারা দফায় দফায় ফোন করে টাকা কখন দেওয়া হবে, জানতে চাচ্ছে। অপহৃত তিন গাড়িচালকও কথা বলেছেন। তাঁরা জানিয়েছেন, তাঁদের কোনো সমস্যা হচ্ছে না এবং সবাই ভালো আছেন।

গত সোমবার বিকেলে যাত্রী নামিয়ে দিয়ে মুননুয়ামপাড়া ও পুনর্বাসনপাড়া থেকে রুমা উপজেলা সদরে ফেরার পথে মিনঝিরি রাস্তার মাথা এলাকা থেকে তিন গাড়িচালককে অপহরণ করা হয়। অপহৃত চালকেরা হলেন বাসু কর্মকার, মিজানুর রহমান ও নয়ন জলদাশ। এ সময় গাড়িচালকের সহকারীদের ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

ছেড়ে দেওয়া গাড়িচালকের সহকারী মিল্টন কর্মকার বলেছেন, বিকেলে চারটার দিকে মিনঝিরি রাস্তার মাথায় ১০-১২ জন সশস্ত্র সন্ত্রাসী তাঁদের গাড়ি আটক করে। গাড়ি আটকের পর প্রথমে তারা জানতে চায়, গাড়িগুলো রুমা পরিবহন মালিক সমিতির কি না। মালিক সমিতির গাড়ি বললে গাড়িচালকদের থেকে চালকদের সহকারী ও একটি গাড়িতে থাকা সাতজন যাত্রীকে আলাদা করা হয়। এ সময় তাঁরা আতঙ্কে কাঁপছিলেন। পরে সন্ত্রাসীরা যাত্রীদেরসহ তাঁদের চলে যাওয়ার নির্দেশ দেয় এবং তিন চালককে অপহরণ করে। সামরিক পোশাক পরা সন্ত্রাসীরা নিজেদের মধ্যে ও পাহাড়ি যাত্রীদের সঙ্গে মারমা ভাষায় কথা বলেছে। শুধু একজন তাঁদের সঙ্গে বাংলায় কথা বলেছে।

রুমা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম বলেছেন, পারিপার্শ্বিক পরিবেশ ও অবস্থা বিবেচনায় তিন চালককে মগ লিবারেশন পার্টিই অপহরণ করেছে মনে হচ্ছে। অপহরণকারীদের অবস্থান সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তার ও অপহৃত চালকদের উদ্ধারে সম্ভাব্য অবস্থানে সেনাবাহিনী ও পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0