default-image

তিস্তায় সেতু নির্মাণের একটি দরপত্রে ৪৫ কোটি টাকা​র ভুয়া ব্যাংক গ্যারান্টি দিয়ে কাজ ভাগিয়ে নিয়েছিল ইনফ্রাটেক কনস্ট্রাকশন ও পিটিএসএল মৈত্রী লিমিটেড। পরে যাচাই করলে তাদের জালিয়াতি ধরা পড়ে এবং কার্যাদেশ বাতিল করা হয়।

ব্যাংক গ্যারান্টি জালিয়াতির অভিযোগে আজ মঙ্গলবার ওই দুই প্রতিষ্ঠানের দুই ব্যবস্থাপনা পরিচালকসহ তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। আসামিরা হলেন ইনফ্রাটেক কনস্ট্রাকশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আলী হায়দার, পিটিএসএল মৈত্রী লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাহাবুবুর রহমান ও এলজিইডির সাবেক প্রকল্প পরিচালক খন্দকার মাহবুব হোসেন।

দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয় ঢাকা-১–এ সংস্থার উপসহকারী পরিচালক শাহজাহান মিরাজ মামলাটি করেন। দুদকের পরিচালক (জনসংযোগ) প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

বিজ্ঞাপন

মামলার এজাহারে বলা হয়, গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় তিস্তা নদীতে প্রায় দেড় কিলোমিটার দীর্ঘ একটি সেতু নির্মাণের জন্য ২০১৭-১৮ অর্থবছরে দরপত্র আহ্বান করে এলজিইডি। এতে ইনফ্রাটেক কনস্ট্রাকশন ও পিটিএসএল মৈত্রী লিমিটেড যৌথভাবে অংশ নেয়। সর্বনিম্ন দরদাতা হিসেবে তারা কাজ পায়। প্রতিষ্ঠান দুটি সাড়ে ৬ কোটি টাকার ভুয়া টেন্ডার সিকিউরিটি এবং ৩৯ কোটি টাকার ভুয়া পারফরম্যান্স সিকিউরিটি জমা দেয়। ইউনিয়ন ব্যাংকের পান্থপথ শাখার নামে এসব ভুয়া সিকিউরিটি করা হয়। পরে যাচাইয়ে তাদের এসব নথি জাল বলে ধরা পড়ে।

মন্তব্য পড়ুন 0