তিন ভাইবোনের ওপর অ্যাসিড হামলাকারীদের শাস্তির দাবিতে গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে ময়মনসিংহ শহরের ফিরোজ জাহাঙ্গীর চত্বরে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। প্রথম আলো বন্ধুসভার উদ্যোগে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে একাত্মতা ঘোষণা করে এতে অংশগ্রহণ করে জেলা নারী নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটি ও স্বাবলম্বী উন্নয়ন সমিতি।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, হালুয়াঘাটে অ্যাসিড হামলার ঘটনা নিন্দনীয় অপরাধ। ঈদের ছুটিতে বেড়াতে আসা মরিয়ম আক্তার নিজের বাড়িতে বসে ভাইবোনদের সঙ্গে আনন্দময় সময় কাটাচ্ছিলেন। ভয়ংকর অ্যাসিড হামলায় তিন ভাইবোনের শরীর ঝলসে গেছে। তাঁরা হাসপাতালের বিছানায় কাতরাচ্ছেন। তাঁদের পুরো পরিবারের ভবিষ্যৎ এখন অনিশ্চয়তায় পড়েছে। দেশে অ্যাসিড সন্ত্রাসের ঘটনা যখন কমে আসছে, তখন হালুয়াঘাটের এই ঘটনা উদ্বেগ বাড়িয়ে দিয়েছে।

মানববন্ধনে ময়মনসিংহ জেলা নারী নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি নজরুল ইসলাম, ময়মনসিংহ কমার্স কলেজের অধ্যক্ষ ও ময়মনসিংহ বন্ধুসভার উপদেষ্টা এখলাস উদ্দিন খান, গণসংহতি আন্দোলনের ময়মনসিংহ জেলার আহ্বায়ক আবুল কালাম আল আজাদ, স্বাবলম্বী উন্নয়ন সমিতির ময়মনসিংহ ইউনিটের প্রধান কর্মকর্তা মনোয়ারুল ইসলাম, কর্মকর্তা আফরোজা আক্তার, কলেজশিক্ষক আনোয়ার হোসেন, সাংবাদিক হোসেন বিনয় প্রমুখ বক্তব্য দেন।

এ ঘটনায় তিন ভাইবোনের বাবা আবুল কালাম বাদী হয়ে বুধবার হালুয়াঘাট থানায় চারজনকে আসামি করে মামলা করেছেন। মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে, মরিয়মের সাবেক স্বামী সোহেল গত মঙ্গলবার রাতে আল আমিন নামের আরেকজনের মাধ্যমে অ্যাসিড ছোড়ার ঘটনা ঘটিয়েছেন। পুলিশ সোহেল, আল আমিন ও অ্যাসিড বিক্রির অভিযোগে উজ্জ্বলকে গ্রেপ্তার করেছে।

এদিকে অ্যাসিডদগ্ধ মরিয়ম ও তাঁর ভাই রাসেলের অবস্থা এখনো শঙ্কামুক্ত নয় বলে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের চিকিৎসক লিমন কুমার ধর জানিয়েছেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0