default-image

বগুড়ার ধুনট উপজেলায় কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে করা মামলায় সাধন চন্দ্র সরকার (২৫) নামের এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল বৃহস্পতিবার তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পুলিশ, স্থানীয় বাসিন্দা ও মামলার এজাহারের ভাষ্য, উপজেলার একটি বাজারে সাধনের খাবারের হোটেল আছে। ওই কলেজছাত্রী এই পথ দিয়ে আসা-যাওয়ার পথে সাধন তাঁকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে উত্ত্যক্ত করতেন। এক বছর আগে কলেজছাত্রীকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে মা-বাবাকে দেখানোর কথা বলে বাড়িতে ডেকে নিয়ে যান সাধন। এ সময় বাড়িতে পরিবারের কেউ না থাকার সুযোগে সাধন তাঁকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। ঘটনাটি নিয়ে এলাকায় সালিস বৈঠক হয়। গত বুধবার রাত নয়টার দিকে সাধন ওই কলেজছাত্রীর ঘরের দরজার রশি কেটে ভেতরে ঢুকে তাঁকে ধর্ষণ করেন।

বিজ্ঞাপন

বিষয়টি পরিবারের লোকজন জানতে পেরে গ্রামবাসীর সহযোগিতায় সাধনকে আটক করে। ঘটনার খবর পেয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাঁকে থানায় নিয়ে যায়। এ ঘটনায় কলেজছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে রাতে ধর্ষণের মামলা করেন।

তবে থানাহাজতে আটক সাধন সরকারের দাবি, ওই কলেজছাত্রী তাঁকে ডেকে নিয়ে গ্রামবাসীর মাধ্যমে আটক করে পুলিশে দিয়েছেন। তাঁকে বিয়ে করতে রাজি না হওয়ায় ধর্ষণের অভিযোগে মামলা করেছেন।

ধুনট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কৃপাসিন্ধু বালা বলেন, কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে করা মামলায় সাধন সরকারকে আজ শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। ওই কলেজছাত্রীর স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

মন্তব্য পড়ুন 0