বগুড়ার ধুনট-শেরপুর রোডের হুকুম আলী বাসস্ট্যান্ড এলাকার একটি ভুট্টাখেত থেকে এক নবজাতককে (মেয়ে) উদ্ধার করেছে পুলিশ। গত বৃহস্পতিবার সকাল নয়টার দিকে তাকে উদ্ধার করে ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।
স্থানীয় সূত্র জানায়, উপজেলা সদরের উল্লাপাড়া গ্রামের এক কৃষক মাঠে যাচ্ছিলেন। পথে পাশের একটি ভুট্টাখেতের ভেতরে শিশুর কান্নার শব্দ শুনতে পান। তিনি এগিয়ে গেলে একটি নবজাতককে দেখতে পান। পরে থানায় খবর দিলে পুলিশ অক্ষত অবস্থায় ওই নবজাতককে উদ্ধার করে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।
এ সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে অনেকে সকাল থেকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের শিশু ওয়ার্ডে নবজাতককে দেখতে ভিড় করে। তাঁদের কেউ কেউ নবজাতককে লালন-পালনের দায়িত্বও নিতে চান। এ নবজাতককে দত্তক নিতে একাধিক ব্যক্তির মধ্যে প্রতিযোগিতা শুরু হয়। তখন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পুলিশ মোতায়েন করা হয়।
ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) মাবুবুজ্জামান জানান, বুধবার দিবাগত রাত চারটার দিকে শিশুটি ভূমিষ্ঠ হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় গতকাল শুক্রবার সকালে তাকে শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
ধুনট থানার ওসি জিয়াউর রহমান বলেন, উদ্ধার করা নবজাতককে কে বা কারা ভুট্টাখেতে ফেলে রেখেছে, তা নিশ্চিত করে বলা সম্ভব নয়। তবে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। নবজাতকের অভিভাবককে খোঁজ করে পাওয়া না গেলে এ ব্যাপারে পরে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন