নব্য জেএমবি সন্দেহে খুবির দুই শিক্ষার্থী গ্রেপ্তার

বিজ্ঞাপন
default-image

নব্য জেএমবি সন্দেহে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের (খুবি) দুই শিক্ষার্থীকে গ্রেপ্তার করেছে খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের (কেএমপি) বিশেষ একটি দল। তাঁদের খুলনা নগরের গল্লামারী এলাকার একটি ভাড়া বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গতকাল শুক্রবার গভীর রাত থেকে আজ শনিবার ভোর সাড়ে পাঁচটা পর্যন্ত ওই অভিযান চলে।

গ্রেপ্তার হওয়া দুজন হলেন খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবিএ চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী নুর মোহাম্মদ (২৪) ও পরিসংখ্যান বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী মো. মোজাহিদুল ইসলাম। নুরের বাড়ি মানিকগঞ্জ জেলায়। মোজাহিদুলের বাড়ি বগুড়া জেলায়।

পুলিশের দাবি, ওই দুজন নব্য জেএমবির সদস্য। তাঁদের কাছ থেকে বোমা তৈরির বিপুল পরিমাণ সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়েছে। সম্প্রতি খুলনা নগরের খানজাহান আলী থানা কৃষক লীগ কার্যালয় ও আড়ংঘাটা থানার সামনে বোমা হামলার ঘটনার সঙ্গে ওই দুজন জড়িত ছিলেন। বোমা তৈরির উপকরণ তাঁরা স্থানীয়ভাবে সংগ্রহ করতেন।

বেলা ১১টার দিকে কেএমপি কার্যালয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ের আয়োজন করা হয়। কেএমপি কমিশনার খন্দকার লুৎফুল কবির বলেন, গত বছরের ২৩ সেপ্টেম্বর খানজাহান আলী থানা কৃষকলীগ কার্যালয় ও ৫ ডিসেম্বর আড়ংঘাটা থানার গাড়ি রাখার গ্যারেজে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। নুর ও মুজাহিদুল প্রাথমিকভাবে ওই ঘটনার সঙ্গে সরাসরি সম্পৃক্ত থাকার কথা স্বীকার করেছেন। তাঁরা নব্য জেএমবি সদস্য।

কমিশনার লুৎফুল আরও বলেন, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তাঁরা উগ্রবাদী মতাদর্শে আকৃষ্ট হন। পরে নব্য জেএমবিতে সম্পৃক্ত হন। একপর্যায়ে নিজেরাই নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড পরিচালনার ছক তৈরি করেন এবং দূরনিয়ন্ত্রিত বোমা তৈরির কারিগরি জ্ঞান অর্জন করেন। তাঁরা দূরনিয়ন্ত্রিত বোমা প্রস্তুত করে ওই দুই স্থানে বিস্ফোরণ ঘটান। বোমার সরঞ্জামাদি রাখার জন্য তাঁরা ভাড়া বাসা ব্যবহার করতেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন