default-image

নরসিংদীর শিবপুর উপজেলায় জাকিয়া সুলতানা (৩৫) নামের এক গৃহবধূকে পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় নিহত গৃহবধূর বাবার অভিযোগের ভিত্তিতে গৃহস্বামীকে আটক করেছে পুলিশ।

আজ রোববার সকালে অভিযুক্ত আলমগীরকে (৪০) আটক করে শিবপুর মডেল থানা-পুলিশ। তিনি শিবপুরের কুমরাদী গ্রামের করিম মিয়ার ছেলে।

নিহত গৃহবধূর পরিবার ও পুলিশ বলছে, গত মঙ্গলবার রাতে জাকিয়া নিজ ঘরে অগ্নিদগ্ধ হন। গুরুতর আহত অবস্থায় সে রাতেই তাঁকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়। চার দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর গতকাল শনিবার সকালে তাঁর মৃত্যু হয়।

জাকিয়ার বাবা সানোয়ার মিয়ার অভিযোগ, আলমগীরই হত্যার উদ্দেশ্যে পরিকল্পিতভাবে তাঁর মেয়ের গায়ে আগুন ধরিয়ে দেন। ঘটনা ধামাচাপা দিতে স্থানীয় একটি প্রভাবশালী চক্র চেষ্টা চালাচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

শিবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোল্লা আজিজুর রহমান প্রথম আলোকে বলেন, নিহত গৃহবধূর স্বজনদের অভিযোগের ভিত্তিতে স্বামী আলমগীরকে আটক করা হয়েছে। তদন্তে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেলে যথাযথ আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন