default-image

এক মাস ধরে নিখোঁজ স্বামীর সন্ধানে গিয়ে নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে মিজমিজি সাহেবপাড়া এলাকায় এক গৃহবধূকে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গত রোববার রাত সাড়ে আটটার দিকে ঘটা এ ঘটনায় সোমবার বিকেলে দুজনকে আসামি করে ওই গৃহবধূ সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় মামলা করেছেন।

বিজ্ঞাপন

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, প্রায় এক মাস ধরে ওই গৃহবধূর (২৩) স্বামীর সন্ধান মিলছে না। রোববার সন্ধ্যায় আড়াই বছরের ছেলেকে সঙ্গে নিয়ে স্বামীকে খুঁজতে বের হন তিনি। রাত সাড়ে আটটার দিকে স্বামীর বন্ধু মহসিন মিয়ার (৩৫) সঙ্গে সাহেবপাড়া বাজার এলাকায় দেখা হয়। মহসিনের কাছে স্বামীর সন্ধান জানতে চান তিনি। তখন মহসিন সন্ধান দেওয়ার কথা বলে ওই গৃহবধূকে মিজমিজি সাহেবপাড়া নতুন রাস্তার ১ নম্বর সড়কের জসিম উদ্দিনের নবনির্মিত চারতলা ভবনের নিচতলার একটি কক্ষে নিয়ে যান। সেখানে যাওয়ার পর গৃহবধূ তাঁর স্বামী কোথায় আছে জানতে চান। এ সময় মহসিন গৃহবধূর কোলে থাকা আড়াই বছরের ছেলেকে পাশে রেখে তাঁকে ধর্ষণ করেন।

বিজ্ঞাপন

মামলায় আরও উল্লেখ করা হয়, এ ঘটনার কিছুক্ষণের মধ্যে রমজান (৩২) নামের আরেকজন ওই কক্ষে আসেন। রমজানও তাঁকে ধর্ষণ করেন। তাঁরা এ ঘটনা কাউকে না বলার জন্য হুমকি দিয়ে চলে যান। মহসিন গাজীপুর সদরের সারদাগঞ্জ এলাকার সামছুল বিশ্বাসের ছেলে। রমজানের বাড়ি সিরাজগঞ্জ জেলার উল্লাপাড়া থানার কেশবগঞ্জে। তাঁরা দুজনই সিদ্ধিরগঞ্জ সাহেবপাড়া এলাকায় ভাড়া থাকেন।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কামরুল ফারুক জানান, এ ঘটনায় গৃহবধূ বাদী হয়ে মামলা করেছেন। জড়িত ব্যক্তিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

মন্তব্য পড়ুন 0