default-image

যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলায় এক চাতালশ্রমিক অ্যাসিডদগ্ধ হয়েছেন। তাঁর নাম রিনা বেগম (৪০)। শনিবার দিবাগত রাতে রিনার সাবেক স্বামী ইলিয়াস হোসেন (৫০) তাঁকে লক্ষ্য করে অ্যাসিড ছুড়ে পালিয়ে যান বলে অভিযোগ উঠেছে। অ্যাসিডে রিনার মুখমণ্ডল, বুক, পিঠ ও হাত পুড়ে গেছে। তাঁকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

রিনা বেগম যশোর সদর উপজেলার নারাঙ্গালী গ্রামের নূর আলী সরদারের মেয়ে। রিনা বেগম জানান, ঝিকরগাছা উপজেলার নদাপাড়া গ্রামের ইলিয়াস হোসেনের সঙ্গে তাঁর বিয়ে হয়। ইলিয়াস প্রায়ই তাঁকে মারধর করতেন। সে কারণে ১৫ দিন আগে রিনা তাঁকে তালাক দেন। এরপর তিনি নওদাপাড়া গ্রামের বাড়ি ছেড়ে ঝিকরগাছা উপজেলার জয়কৃষ্ণপুর গ্রামের খোরশেদ আলমের চাতালে শ্রমিকের কাজ নেন। চাতালে একটি ঘরে তিনি থাকেন। শনিবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে ইলিয়াস হোসেন তাঁর শোবার ঘরে প্রবেশ করেন। এরপর তিনি টর্চ জ্বালিয়ে তাঁর মুখে অ্যাসিড ছুড়ে পালিয়ে যান। অ্যাসিড তাঁর মুখ, বুক, পিঠ ও হাতে লেগে ঝলসে যায়। এ সময় তিনি চিৎকার দিলে এলাকাবাসী ছুটে আসেন এবং তাঁকে উদ্ধার করেন। রোববার ভোর পাঁচটার দিকে তাঁকে যশোর ২৫০ শয্যার জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়।

ওই হাসপাতালের সার্জারি বিভাগের ইন্টার্ন চিকিৎসক মো. কামরুজ্জামান জানান, ওই নারীর মুখমণ্ডল, বুক, পিঠ ও হাতের কিছু অংশ ঝলসে গেছে। অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় ঢাকায় শেখ হাসিনা বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে নিতে বলা হয়েছিল। কিন্তু তাঁর পরিবার তাঁকে ঢাকায় নিতে আর্থিকভাবে সক্ষম নয়। এ জন্য হাসপাতালে রেখে তাঁরা তাঁকে সাধ্যমতো চিকিৎসা দিচ্ছেন।

ঝিকরগাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুর রাজ্জাক রোববার রাতে বলেন, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। আসামিকে ধরার জন্য অভিযান চলছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0