default-image

হরতালে নাশকতা ও হামলার মামলায় হেফাজতে ইসলামের ঊর্ধ্বতন নেতারা জড়িত থাকলে তাঁদের বিরুদ্ধে মামলা ও ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) বেনজীর আহমেদ। আজ বুধবার ঢাকার সিএমএইচে চিকিৎসাধীন আহত পুলিশ সদস্যদের দেখতে গিয়ে তিনি সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন।

মামলায় হেফাজতের ঊর্ধ্বতন নেতাদের নাম কেন আসেনি, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের উত্তরে আইজিপি বলেন, ‘নাম না থাকলে যে তদন্তে তাঁদের নাম আসবে না, এমন কোনো কথা নেই। আমরা কোনো কিছুকে প্রভাবিত করতে চাই না। আমাদের দেশে একটি কাজ করলে দশ রকমের সমালোচনা শুরু হয়। আমরা মনে করি, যারা হামলা করেছে, তাদের মামলায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। যদি কেউ নির্দেশদাতা থাকে, ডেফিনেটলি তারাও আসবে। কাউকে বাদ দিচ্ছি, এমন কোনো কথা বলছি না। আমরা বলছি, যারা অনস্পট ছিল, তাদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। তদন্তের সময় যাঁরা নির্দেশ দিয়েছেন, তাঁরাও আসবেন আমরা মনে করি। তাঁরা স্বাধীনতাকে কলুষিত করার চেষ্টা করেছেন।’

বিজ্ঞাপন

আইজিপি আরও বলেন, ‘স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদ্‌যাপনের দিন হেফাজত সারা দেশে তাণ্ডব চালায়। মাদ্রাসার কোমলমতি শিক্ষার্থীদের ব্যবহার করে হাটহাজারী থানায় হামলা চালিয়েছে। এর আগেও এ থানায় তারা হামলা চালিয়েছে। ডাকবাংলোতে আক্রমণ করেছে। ভূমি অফিসে আক্রমণ করেছে। ভূমি অফিসের সব কাগজপত্র একত্র করে জ্বালিয়ে দিয়েছে। এ ঘটনা হয়তো এখানেই শেষ হতো। কিন্তু এই ভূমি অফিস জ্বালিয়ে দেওয়ার ফলে ওই অঞ্চলের মানুষ বছরের পর বছর কষ্ট পাবেন। এমনি বাংলাদেশের মানুষ জমিসংক্রান্ত একটি বিরাট সমস্যা। আমাদের ক্রাইমের একটি উৎস এই ভূমি সমস্যা।’

অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন