নোয়াখালীতে কথিত জিনের বাদশা গ্রেপ্তার, প্রায় ৫ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ

বিজ্ঞাপন
default-image

প্রতারণার মাধ্যমে প্রায় পাঁচ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে নোয়াখালীতে মো. সাইফুল ইসলাম (৪০) নামের এক কথিত জিনের বাদশাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আজ শনিবার তাঁকে নোয়াখালীর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

গতকাল শুক্রবার রাতে চাটখিল উপজেলার নুর নাহার নামের এক নারী বাদী হয়ে তাঁর বিরুদ্ধে সুধারাম থানায় মামলা করেন।

সুধারাম থানার পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গ্রেপ্তার সাইফুল ইসলামের গ্রামের বাড়ি গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার মীরুপাড়া এলাকায়। তিনি ২০১০ সালের ১০ নভেম্বর থেকে বিভিন্ন সময়ে জিনের বাদশা পরিচয় দিয়ে চাটখিল উপজেলার পশ্চিম পরকোট গ্রামের নুর নাহার (৩৮) নামের এক নারীর কাছে থেকে নোয়াখালী শহরের এস এ পরিবহন ও সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে ৪ লাখ ৮০ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেন।

সূত্র জানায়, গত বৃহস্পতিবার পুনরায় একটি মুঠোফোন ও একটি স্বর্ণের আংটি নেওয়ার জন্য ওই প্রতারক নোয়াখালী এলে নুর নাহার ও তাঁর ছেলে সোনাইমুড়ী জামে মসজিদের সামনে থেকে তাঁকে আটক করে চাটখিল থানায় নিয়ে যান। পরে চাটখিল থানা থেকে তাঁকে গতকাল সুধারাম থানায় পাঠানো হয়। এ ঘটনায় নুর নাহার বাদী হয়ে সুধারাম থানায় একটি মামলা করেছেন।

সুধারাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নবীর হোসেন বলেন, সাইফুল প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে প্রতারণার কথা স্বীকার করেছেন। সাইফুল একইভাবে দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে প্রতারণার মাধ্যমে অর্থ হাতিয়ে নিয়েছেন বলেও তথ্য দিয়েছেন। তাঁর বিরুদ্ধে তদন্ত অব্যাহত আছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন