নোয়াখালীতে প্রবাসীর স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যা, ভাশুর পলাতক

বিজ্ঞাপন
default-image

নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলার মরিয়মী বেগম (৩৪) নামের এক গৃহবধূকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। ঘটনার পর থেকে তাঁর ভাশুর (স্বামীর বড় ভাই) শাহজাহান সাজু পরিবারসহ পলাতক।

নিহত মরিয়মী উপজেলার রামনারায়ণপুর ইউনিয়নের বেগম উত্তর রামনারায়ণপুর গ্রামের প্রবাসী ফেয়ার হোসেনের স্ত্রী। সোমবার রাত ৮টার দিকে নোয়াখালী ২৫০ শয্যার জেনারেল হাসপাতালে তাঁর মৃত্যু হয়।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, পারিবারিক বিষয় নিয়ে সোমবার বিকেল ৪টার দিকে মরিয়মীর সঙ্গে তাঁর ভাশুর শাহজাহান সাজুর বাগ্‌বিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে শাহজাহান ক্ষিপ্ত হয়ে দা নিয়ে মরিয়মীকে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকেন। মরিয়মী মাটিতে লুটে পড়লে পালিয়ে যান শাহজাহান। পরে তাঁর পরিবারের অন্য সদস্যরাও বাড়ি থেকে চলে যান। বাড়ির অন্যরা মূমূর্ষ অবস্থায় মরিয়মীকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে এনে ভর্তি করেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত ৮টার দিকে তাঁর মৃত্যু হয়।

হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) সৈয়দ মহিউদ্দিন আব্দুল আজিম প্রথম আলোকে বলেন, ওই নারীর শরীরে ধারালো কিছু দিয়ে এলোপাতাড়ি কোপানোর চিহ্ন রয়েছে। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের কারণে তাঁর মৃত্যু হয়েছে।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যান চাটখিল থানার একদল পুলিশ। দলটির নেতৃত্বে আছেন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ারুল ইসলাম। রাত ১০টায় প্রথম আলোকে ওসি বলেন, তিনি ঘটনাস্থলে রয়েছেন। তদন্ত শেষে এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন