default-image

লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারীতে আবু ইউনুছ মোহাম্মদ সহীদুন্নবী জুয়েলকে (৫০) পিটিয়ে ও পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় দায়ের করা তিন মামলায় আরও একজনকে গ্রেপ্তার করেছে গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ। গত বছরের ২৯ অক্টোবর সন্ধ্যায় বুড়িমারী মসজিদে পবিত্র কোরআন অবমাননার অভিযোগ তুলে রংপুরের শালবন এলাকার আবু ইউনুছ মোহাম্মদ সহীদুন্নবীকে পিটিয়ে ও পুড়িয়ে হত্যা করা হয়। ঘটনার পর থেকে ১৮ দফায় ৪৮ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

পুলিশ জানিয়েছে, সর্বশেষ বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে উপজেলার বুড়িমারী ইউনিয়নের ইসলামপুর গ্রাম থেকে গ্রেপ্তার করা হয় হাফিজুল রহমানকে (৫৮)। গ্রেপ্তার হাফিজুল রহমান বুড়িমারী ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ড ইউপি সদস্য এবং ওই ইউনিয়নের বাসিন্দা।

বিজ্ঞাপন

এ ঘটনায় দায়ের করা তিনটি মামলায় ৪৮ জন গ্রেপ্তার ছাড়াও ১২ ব্যক্তি আদালতে আত্মসমর্পণ করেছেন। এর মধ্যে ১৬ ব্যক্তিকে বিভিন্ন মেয়াদে রিমান্ডে নেয় পুলিশ। এর মধ্যে ছয় ব্যক্তি দায় স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। গ্রেপ্তার ব্যক্তিদের মধ্যে ১৮ জন জামিনে রয়েছেন।

ডিবি জানায়, গত বছরের ২৯ অক্টোবর আবু ইউনুছ মো. সাহিদুন্নবীকে হত্যা, পুলিশের ওপর হামলা ও বুড়িমারী ইউনিয়ন পরিষদ ভবনে হামলার ঘটনায় পৃথক তিনটি মামলা হয়। সর্বশেষ গ্রেপ্তার হাফিজুল এসব মামলার এজাহারভুক্ত আসামি। তিনি দীর্ঘদিন পলাতক থেকে শুধু হত্যা মামলায় হাইকোর্ট থেকে চার সপ্তাহের জামিন নেন। তবে পুলিশের ওপর হামলা মামলার ১৪ নম্বর আসামি হিসেবে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন