পাথরঘাটায় ধর্ষণের ভয় দেখিয়ে ডাকাতির অভিযোগ

বিজ্ঞাপন
default-image

বরগুনার পাথরঘাটায় ধর্ষণের ভয় দেখিয়ে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। উপজেলার দক্ষিণ কাকচিড়া গ্রামের বাদল হাওলাদারের বাড়িতে বুধবার রাত আড়াইটার দিকে দুর্বৃত্তরা হানা দেয়। বাসিন্দাদের দাবি, ডাকাত দল বাড়ি থেকে দুটি এয়ারগান, সাড়ে ৮ লাখ টাকা ও প্রায় ১০ ভরি স্বর্ণালংকার লুটে নিয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বাদল হাওলাদার (৫৩) পাথরঘাটা উপজেলা সাব রেজিস্ট্রার কার্যালয়ের একজন দলিল লেখক। তাঁর পরিবারের সদস্যদের দাবি, রাতের খাবার শেষে পরিবারের তিন সদস্য ঘুমিয়ে পড়েন। রাত আড়াইটার দিকে গ্রিলের দরজার তালা ভেঙে ঘরে ঢোকেন দুর্বৃত্তরা। বিষয়টি টের পান বাদল হাওলাদার। এ সময় তিনজন ঘুম থেকে উঠে ঘরের মধ্যে মুখ বাঁধা অবস্থায় ছয়জনকে দেখে আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। ডাকাত দলের হাতে ধারালো অস্ত্র ছিল। ডাকাত দল অস্ত্রের মুখে তাদের জিম্মি করে হাত-পা বেঁধে ফেলে। এ সময় ঘরের একমাত্র নারী সদস্যকে পাশের কক্ষে নিয়ে ধর্ষণের ভয় দেখানো হয়। এরপর তাঁরা মালামাল লুটে নেন।

বাদল হাওলাদারের স্বজন ও পাথরঘাটা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. জাবির হোসেন দাবি করেন, ‘ডাকাত দল দুটি ব্যক্তিগত এয়ারগান, সাড়ে ৮ লাখ টাকা ও প্রায় ১০ ভরি স্বর্ণালংকার লুট করে নিয়ে যায়। ডাকাত দলের সবার মুখ বাঁধা থাকায় কাউকে চেনা যায়নি। তবে স্থানীয় ভাষায় তাঁরা কথা বলেছেন।’

পাথরঘাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শাহাবুদ্দিন বলেন, এয়ারগান দুটি বাদল হাওলাদারের ব্যক্তিগত। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এ ঘটনায় মামলা হবে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন