ঢাকার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের কদমতলী এলাকায় গত শনিবার রাতে অভিযান চালিয়ে চারটি পেট্রলবোমা ও পাঁচটি ককটেলসহ বিএনপি ও ছাত্রলীগের দুই নেতাকে আটক করেছে র্যা ব।
আটককৃত দুই ব্যক্তি হলেন জিনজিরা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক নূর হোসেন ও ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি মো. কামাল। তাঁরা বন্দ ডাকপাড়া এলাকার মৃত আবদুল খালেকের ছেলে।
গতকাল রোববার দুপুরে ওই দুজনকে ঢাকা জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করা হয়। আদালত তাঁদের জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।
স্থানীয় কয়েকজন জানান, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে র্যা ব-১০ ধলপুর ক্যাম্পের সদস্যরা শনিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানাধীন কদমতলী এলাকায় ভাই ভাই মার্কেটের নিচে বিএনপি নেতা কামালের সিএনজি গ্যারেজে অভিযান চালান। সেখান থেকে নূর হোসেন ও মো. কামালকে চারটি পেট্রলবোমা ও পাঁচটি ককটেলসহ আটক করা হয়।
কামালের রাজনৈতিক পরিচয় নিশ্চিত করেছেন দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানা বিএনপির আহ্বায়ক নাজিম উদ্দিন মাস্টার। তিনি বলেন, কামাল ওই ধরনের অপকর্মের সঙ্গে জড়িত থাকতে পারেন না।
নূর হোসেনের রাজনৈতিক পরিচয় নিশ্চিত করে ঢাকা জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মনির হোসেন রাজীব বলেন, একটি চক্র চক্রান্ত করে নুর হোসেনকে ফাঁসিয়ে দিয়েছে। তিনি ওই ঘটনায় জড়িত নন।
দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. জামাল উদ্দিন মীর বলেন, ‘র্যা ব-১০ ধলপুর ক্যাম্পের সদস্যরা চারটি পেট্রলবোমা ও পাঁচটি ককটেলসহ দুই ব্যক্তিকে আটক করে থানায় সোপর্দ করেছেন। তাঁরা কোনো রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সম্পৃক্ত কি না, তা আমরা বলতে পারব না।’

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন