চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে ছয়টি পেট্রলবোমা, পাঁচটি ককটেল, দুই লিটার পেট্রলসহ এক কাঠমিস্ত্রিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গত শনিবার দিবাগত রাত পৌনে তিনটায় বারৈয়ারহাট এলাকার মাইশা ফার্নিচার অ্যান্ড টিম্বার মার্ট নামের একটি দোকান থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়।
মোহাম্মদ রিপন ওরফে কালা (২৫) নামের ওই কাঠমিস্ত্রি দেড় মাস ধরে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের জোরারগঞ্জ ও মিরসরাই এলাকায় বিভিন্ন নাশকতার ঘটনায় জড়িত বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছেন বলে পুলিশ দাবি করেছে।
জোরারগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) সফিকুল ইসলাম জানান, রিপনের বিরুদ্ধে থানায় তিনটি মামলা রয়েছে।
চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ সুপার এ কে এম হাফিজ আক্তার প্রথম আলোকে জানান, রিপন পেশায় কাঠমিস্ত্রি হলেও দেড় মাস ধরে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের জোরারগঞ্জ ও মিরসরাই এলাকায় নাশকতা করে আসছিলেন। পেট্রলবোমা ছুড়ে চারটি কাভার্ড ভ্যান ও ট্রাক পুড়িয়েছেন। তাঁর সঙ্গে আরও পাঁচজন আছেন, যাঁদের নাম-ঠিকানা পাওয়া গেছে।
জেলা পুলিশ সুপার দাবি করেন, জিজ্ঞাসাবাদে মোহাম্মদ রিপন জানিয়েছেন, বারৈয়ারহাট পৌর বিএনপির সাবেক সভাপতি মাঈনউদ্দিন লিটন নাশকতার জন্য টাকার জোগান দিয়ে আসছেন।
এ বিষয়ে বক্তব্য জানতে মুঠোফোনে মাঈনউদ্দিন লিটনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, রিপন বিএনপির মিছিল-সমাবেশে যেতেন। তবে নাশকতার জন্য তাঁকে টাকার জোগান দেওয়ার অভিযোগ অস্বীকার করেন তিনি। তাঁর দাবি, আওয়ামী লীগ ও প্রতিপক্ষের লোকজন তাঁকে ঘায়েল করতে রিপনকে দিয়ে এ কথা বলাতে পারেন।

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন