default-image

শেরপুরের শ্রীবরদীতে শারীরিক ও মানসিক প্রতিবন্ধী এক তরুণীকে (২৪) ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ বেলাল হোসেন (৩২) নামের এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে।

শ্রীবরদী থানার পুলিশ বেলালকে উপজেলার চরশিমুলচূড়া গ্রামের বাড়ি থেকে গতকাল বুধবার রাতে গ্রেপ্তার করে।

চলতি বছরের ১০ জানুয়ারি থেকে ২২ ফেব্রুয়ারির বিভিন্ন সময়ে উপজেলার একটি গ্রামে তরুণীর এক নিকটাত্মীয়ের বাড়িতে ধর্ষণের এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় গতকাল রাতে তরুণীর মা বাদী হয়ে বেলাল হোসেনকে আসামি করে শ্রীবরদী থানায় মামলা করেন। রাতেই পুলিশ অভিযান চালিয়ে বেলালকে গ্রেপ্তার করে।

বিজ্ঞাপন

মামলার এজাহার ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ধর্ষণের শিকার প্রতিবন্ধী তরুণীটির বাবা নেই। তাঁর মা ঢাকায় গৃহকর্মীর কাজ করেন। তরুণীটি উপজেলার একটি গ্রামে তাঁর এক নিকটাত্মীয়ের বাড়িতে থাকেন। এ সুযোগে এক মাসের বেশি সময় ধরে প্রতিবেশী বেলাল বিভিন্ন সময়ে তরুণীটিকে ধর্ষণ করেন। গতকাল ওই তরুণী অসুস্থ হয়ে পড়লে গ্রামের এক ব্যক্তি বিষয়টি জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯-এ জানান। পরে সংবাদ পেয়ে গতকাল সন্ধ্যায় শ্রীবরদী থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ধর্ষণের শিকার তরুণীকে উদ্ধার করেন। তাঁকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

শ্রীবরদী থানার উপপরিদর্শক (এসআই) ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মো. শফিকুর রহমান প্রথম আলোকে বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে বেলাল ওই তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ স্বীকার করেছেন। বেলালকে আদালতে সোপর্দ করার প্রক্রিয়া চলছে। ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য তরুণীকে জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন