ফরিদপুর ও ঝিনাইদহে তিন তরুণ খুন হয়েছেন। গতকাল শুক্রবার তাঁদের লাশ উদ্ধার করা হয়।
নিহত ব্যক্তিরা হলেন ফরিদপুর সদরের বাক্প্রতিবন্ধী শাহজাহান মোল্লা (৩৫) ও অজ্ঞাতনামা ব্যক্তি (২৩) এবং ঝিনাইদহের শৈলকুপার অজ্ঞাতনামা ব্যক্তি (২৬)।
নিহত শাহজাহানের পরিবার ও ফরিদপুর কোতোয়ালি থানার পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার বিকেলে শাহজাহান কাশিমাবাদ মোড়ের মালেকের দোকানে চা পান করতে যান। ওই রাতে তিনি আর বাড়ি ফেরেননি। গতকাল সকালে কাশিমাবাদ গ্রামের শমশের মিয়ার মেহগনিবাগানে তাঁর লাশ দেখে স্থানীয় লোকজন পুলিশে খবর দেন। পুলিশ সকাল পৌনে ১০টার দিকে তাঁর লাশ উদ্ধার করে।
কানাইপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান ফকির মো. বেলায়েত হোসেন জানান, শাহজাহানের কাছে সব সময় ২৪-২৫ হাজার টাকা থাকত। ধারণা করা হচ্ছে, এ টাকা নেওয়ার জন্যই তাঁকে খুন করা হয়েছে। কোতোয়ালি থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মাসুদ রানা জানান, ধারণা করা হচ্ছে, শাহজাহানকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। এ ব্যাপারে তাঁর ভাই আনোয়ার মোল্লা বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা কয়েকজনকে আসামি করে থানায় একটি হত্যা মামলা করেছেন।
গতকাল সকালে পদ্মা নদীর ফরিদপুর সদরের নর্থ চ্যানেল ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের নূরুর খেয়াঘাট এলাকায় অজ্ঞাতনামা তরুণের লাশ দেখতে পান স্থানীয় লোকজন। পরে তাঁরা ঘটনাটি পুলিশ ও ইউপি চেয়ারম্যানকে জানান। দুপুরে লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।
এ ব্যাপারে এসআই মাসুদ রানা জানান, ওই তরুণের পরনে কালো জামা-প্যান্ট ও লাল রঙের গেঞ্জি রয়েছে। তরুণের গলা ও বুকে ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন ছিল। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।
অন্যদিকে ঝিনাইদহের শৈলকুপা থানার পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গতকাল সকালে উপজেলার ভাটই বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল কলেজের পাশে কলাখেতে অজ্ঞাতনামা এক যুবকের লাশ পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয় লোকজন। পরে তাঁরা পুলিশে খবর দেন। সকাল সাড়ে আটটার দিকে পুলিশ তাঁর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঝিনাইদহ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।
শৈলকুপার ভাটই পুলিশ ফাঁড়ির সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) বেলাল হোসেন জানান, তাঁদের ধারণা, বৃহস্পতিবার রাতের কোনো একসময় ওই যুবককে গলা কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন