default-image

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শেরে বাংলা হলে শিক্ষার্থী নির্যাতনের ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করেছে হল কর্তৃপক্ষ। আগামী পাঁচ কর্মদিবসের মধ্যে কমিটিকে ঘটনা তদন্ত করে প্রতিবেদন দিতে জমা দিতে বলা হয়েছে। গতকাল বুধবার বিকেলে এ কমিটি গঠন করা হয়।

শেরে বাংলা হলের প্রভোস্ট মু. ইব্রাহিম মোল্লা আজ বৃহস্পতিবার প্রথম আলোকে এ তথ্য জানান।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সূত্র জানায়, শেরে বাংলা হলে গত মঙ্গলবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী এবং ছাত্রলীগের নেতা মোহাম্মদ শাহজালাল ইয়ামিনকে নির্যাতনের অভিযোগ ওঠে ছাত্রলীগের অপর একটি পক্ষের বিরুদ্ধ। এ ঘটনায় হল কর্তৃপক্ষ গতকাল দুপুরে জরুরি সভা ডাকে। সভা চলে বিকেল পর্যন্ত। সভায় উপস্থিত সব আবাসিক শিক্ষকদের ঘটনার বিষয়ে জানানো হয়। এরপর আবাসিক শিক্ষক ইয়াসিফ আহমদকে আহ্বায়ক করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।

কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন একই হলের আবাসিক শিক্ষক মো. সোহেল রানা ও মো. সাইফুল ইসলাম। কমিটিকে আগামী পাঁচ কার্যদিবসের মধ্যে সংশ্লিষ্ট বিষয়ে কর্তৃপক্ষের কাছে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।

এর আগে শেরে বাংলা হলে মঙ্গলবার রাতে নির্যাতনের শিকার হওয়া শিক্ষার্থী শাহজালাল ইয়ামিন প্রক্টরের কাছে লিখিত অভিযোগ দেন। তিনি অভিযোগ করেন, মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে তিনি শেরে বাংলা হলের ৪০১৬ নম্বর কক্ষে অবস্থান করছিলেন। ওই সময় ভূতত্ত্ব ও খনিবিদ্যা বিভাগের শিক্ষার্থী আল সামাদ ওরফে শান্ত তাঁর কক্ষে ঢুকে জরুরি কথা আছে বলে তাঁকে হলের ১০০১ নম্বর কক্ষে নিয়ে যান। ওই রুমের ভেতরে ঢোকার সঙ্গে সঙ্গে দরজা বন্ধ করে দেওয়া হয় এবং তাঁর মুখ বেঁধে মারধর করা হয়।

শাহজালালের দাবি, এ সময় ওই কক্ষে চারজন পরিচিতসহ একই বয়সের অপরিচিত আরও কয়েকজন হাতে রড ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে অবস্থান করছিলেন। তাঁদের নিজেদের মধ্যে কথোপকথন চলার এক ফাঁকে তিনি দৌড়ে ৪০১৪ নম্বর রুমে গিয়ে আশ্রয় নেন। ধাওয়া দিয়ে সেখান থেকে অভিযুক্ত ব্যক্তিরা শাহজালালকে ধরে আনতে গেলে অন্য শিক্ষার্থীরা প্রতিরোধ করেন।

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন