বিজ্ঞাপন

এদিকে ইন্টার্ন চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে মামলার বিষয়ে খোঁজখবর নিতে গতকাল শুক্রবার দুপুরে কোতোয়ালি থানায় যান হাসপাতালের পরিচালক মো. বাকির হোসেন। এ সময় তাঁর সঙ্গে কয়েকজন ইন্টার্ন চিকিৎসকও থানায় যান। বাকির হোসেন বলেন, উদ্ভূত পরিস্থিতিতে আইনগত করণীয় নির্ধারণে তিনি থানায় গিয়েছিলেন। বিষয়টি নিয়ে থানার ওসির সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। মামলার বিষয়ে তদন্ত করে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছেন ওসি।

২০ অক্টোবর মাসুদ খানের ওপর হামলার ও নির্যাতনের অভিযোগ ওঠে ইন্টার্ন চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় তিনি কয়েকজন ইন্টার্ন চিকিৎসকের বিরুদ্ধে ২১ অক্টোবর পরিচালকের কাছে লিখিত অভিযোগ দেন। ২২ অক্টোবর ইন্টার্ন চিকিৎসকেরা মাসুদ খানের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগে পরিচালকের কাছে একটি স্মারকলিপি দিয়ে তাঁর বিচার দাবি করেন। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ উভয় পক্ষের অভিযোগ তদন্তের জন্য তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে।

অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন