বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

যাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়, তাঁরা হলেন বাংলাদেশ ব্যাংকের যুগ্ম পরিচালক মোহাম্মদ ফেরদৌস কবির ও এ বি এম মোবারক হোসেন, উপপরিচালক মো. হামিদুল আলম ও সহকারী পরিচালক মো. কাদের। জানা গেছে, এই চারজনকে আলাদা করে দুই ভাগে দুজন করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। দুদকের উপপরিচালক গুলশান আনোয়ারের নেতৃত্বে একটি দল তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ করে।

দুদক সূত্র জানায়, বিভিন্ন অস্তিত্বহীন প্রতিষ্ঠানের নামে পি কে হালদার গং ইন্টারন্যাশনাল লিজিং, পিপলস লিজিং এবং এফএএস ফাইন্যান্স ও ইন্টারন্যাশনাল লিজিং থেকে প্রায় সাড়ে চার হাজার কোটি টাকা আত্মসাৎ করে বিদেশে পাচার করে। এ বিষয়ে দুদক মোট ২২টি মামলা করে। এখন দুদক জানতে চায়, ওই প্রতিষ্ঠানগুলো থেকে অর্থ আত্মসাতের ঘটনায় বাংলাদেশ ব্যাংকের মনিটরিংয়ে দুর্বলতা, অডিট প্রতিবেদনে তথ্য গোপনসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের কী কী দুর্বলতা ছিল, সেসব বিষয় উদ্‌ঘাটন করা। তদন্তের অংশ হিসেবে আজ চার কর্মকর্তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। তদন্তে অন্য কোনো কর্মকর্তার যোগসাজশ পাওয়া গেলে তাঁদেরও জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

দুদকের দায়িত্বশীল একটি সূত্র জানায়, জিজ্ঞাসাবাদে বাংলাদেশ ব্যাংকের চার কর্মকর্তা পি কে হালদারের অর্থ আত্মসাতের ঘটনার সঙ্গে তাঁদের সম্পৃক্ততার কথা অস্বীকার করেন।

অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন