রাজশাহীর বাগমারায় একটি পুকুরের দখল নিয়ে গতকাল শনিবার দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এ সময় এক পক্ষের লোকজন অন্য পক্ষের আটজনকে কুপিয়ে জখম করেছে। তাদের মধ্যে দুজনের পায়ের রগ কাটা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
আহত ব্যক্তিরা হলেন আবদুর রশিদ, জিন্নাহ, মতলেবুর রহমান, সামাদ, সিরাজ, আবদুল করিম, আদু ও আজাদ। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আহত আটজনকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।
আহত মতলেবুর রহমান দাবি করেন, প্রতিপক্ষের লোকজন তাঁদের দুজনের পায়ের রগ কেটে দিয়েছে।
এ প্রসঙ্গে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক হাসনাতুর রাব্বি জানান, আহত ব্যক্তিদের অবস্থা খারাপ হওয়ায় দুপুরে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে বাগমারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু ওবায়দা খান জানান, এ ঘটনায় এখনো কোনো পক্ষ মামলা করেনি।
চারজন প্রত্যক্ষদর্শী ও থানা-পুলিশ সূত্র জানায়, উপজেলার গোয়ালকান্দি ইউনিয়নের কনোপাড়া গ্রামের একটি পুকুরের দখল নিয়ে আবদুর রশিদ ও ডাবলু নামের দুই ব্যক্তির মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। গতকাল সকাল সাড়ে ১০টার দিকে আবদুর রশিদ তাঁর ভাতিজাদের নিয়ে পুকুরের পাশে একটি চায়ের দোকানে বসে ছিলেন।
এ সময় প্রতিপক্ষ ডাবলু ও তাঁর লোকজন ধারালো অস্ত্র নিয়ে তাঁদের ওপর হামলা করে। এ সময় উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে আবদুর রশিদ পক্ষের আটজন গুরুতর ও ডাবলুর পক্ষের দুজন সামান্য আহত হন।

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন