ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের পশ্চিম পাইকপাড়ার চামেলীবাগ এলাকার একটি ফ্ল্যাটবাড়ি থেকে সরকারি হাসপাতালের বিপুল পরিমাণ বিক্রয় নিষিদ্ধ ওষুধ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ এক ব্যক্তিকে আটক করেছে।
উদ্ধার করা এসব ওষুধের মধ্যে রয়েছে জন্মনিয়ন্ত্রণের বিভিন্ন বড়ি, স্যালাইন, অ্যান্টিবায়োটিক ট্যাবলেট।
গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় চামেলীবাগ এলাকার প্রকৌশলী ফজলে এলাহীর দোতলা বাড়ির নিচতলার ভাড়াটের ফ্ল্যাটে অভিযান চালিয়ে পুলিশ এসব ওষুধ উদ্ধার করে। পরে ওই ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার করা ওষুধের কার্টনগুলো একটি ছোট ট্রাকে করে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। এ সময় ওষুধ বিক্রির সঙ্গে জড়িত এমদাদ হোসেন (৫০) নামের এক ব্যক্তিকে আটক করে পুলিশ।
ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) তাপস রঞ্জন ঘোষ জানান, ওই বাড়িতে সরকারি হাসপাতালের ওষুধ মজুত করে তা বাইরে বিক্রি করা হয়—এমন খবর পেয়ে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ বিক্রয় নিষিদ্ধ ওষুধ পাওয়া যায়। এসব ওষুধ জব্দ করা হয়েছে এবং ঘটনার সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় একটি মামলা দায়ের করা হবে বলে জানান তিনি।
এএসপি আরও জানান, সরকারি হাসপাতালের কিছুসংখ্যক অসাধু কর্মকর্তা-কর্মচারীর যোগসাজশে এই ওষুধ সংগ্রহ করে প্রত্যন্ত অঞ্চলে বিক্রি করা হতো বলে ধারণা করা হচ্ছে। এসব ওষুধ বিনা মূল্যে জনসাধারণের কাছে বিতরণ করার কথা ছিল। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে; তদন্ত করে জড়িত ব্যক্তিদের খুঁজে বের করা হবে।

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন