default-image

ঢাকায় হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে সৌদি আরব থেকে আসা এক যাত্রীর কাছ থেকে প্রায় সোয়া তিন কেজি ওজনের সোনার বার উদ্ধার করেছেন শুল্ক কর্মকর্তারা। গতকাল শুক্রবার মধ্যরাতের ঘটনা এটি।

এ ঘটনায় যাত্রী মমেনুর রহমান ও তাঁর ভাগনে বাংলাদেশ বিমানের কর্মী নজরুল ইসলাম ফরাজিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

শুল্ক কর্তৃপক্ষ বলেছে, উদ্ধার করা সোনার দাম আনুমানিক দুই কোটি টাকা।
বিমানবন্দর থানার পুলিশ জানায়, গতকাল দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে একটি উড়োজাহাজে (এসভি ৮০২) সৌদি আরব থেকে শাহজালাল বিমানবন্দরে আসেন মমেনুর রহমান। তিনি গ্রিন চ্যানেল অতিক্রম করার সময় শুল্ক কর্মকর্তারা তাঁর কাছে কোনো সোনা বা স্বর্ণালংকার আছে কি না, জানতে চাইলে তিনি না–সূচক জবাব দেন।

পরে যাত্রী মমেনুরের ব্যাগেজ স্ক্যানিংয়ে একটি চার্জার লাইটের মোটরের ভেতর সোনার বারের অস্তিত্ব পাওয়া যায়। ব্যাগেজ কাউন্টারে এনে ওই চার্জার লাইটের ব্যাটারির ভেতর থেকে প্রায় সোয়া তিন কেজি সোনা উদ্ধার করা হয়। মমেনুরকে গ্রিন চ্যানেল পার হতে সহায়তা করেন তাঁর ভাগনে বিমানকর্মী নজরুল ফরাজি।

বিমানবন্দর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. কায়কোবাদ আজ শনিবার দুপুরে প্রথম আলোকে বলেন, পাসপোর্ট অনুযায়ী যাত্রীর নাম মমেনুর রহমান এবং বিমানকর্মীর নাম নজরুল ফরাজি। উভয়ের বাড়ি নরসিংদীতে। ঢাকা কাস্টম হাউসের কর্মকর্তা মো. বদর উদ্দিন বাদী হয়ে মমেনুর ও নজরুল ফরাজির বিরুদ্ধে আজ সকালে বিমানবন্দর থানায় বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা করেন। আসামিদের সোনার এই চোরাচালান নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন