পাবনার বেড়া পৌর এলাকায় গতকাল রোববার দুই মহল্লাবাসীর সংঘর্ষে পুলিশের ৩ সদস্যসহ অন্তত ২৫ জন আহত হয়েছেন। এ সময় চারটি দোকান ও একটি বাড়িতে ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ ৩৫ থেকে ৪০টি ফাঁকা গুলি ছোড়ে। এ ঘটনায় আটজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।
এলাকার কয়েকজন ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, পৌর এলাকার দক্ষিণপাড়া ও শাহপাড়া মহল্লার কয়েকজনের মধ্যে এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দ্বন্দ্ব চলছিল। এর জের ধরে গতকাল সকালে দক্ষিণপাড়া মহল্লার চঞ্চল (১৮) ও শাহপাড়া মহল্লার সেলিমের (১৯) মধ্যে হাতাহাতি হয়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ও বেলা তিনটার দিকে দুই দফায় উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে দুই পক্ষই নানা রকম দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র ব্যবহার করে। এ সময় শাহপাড়া মহল্লার আবদুস সালামের বাড়ি, আসলামের দোকানসহ চারটি দোকানে ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে দুই পক্ষকে নিবৃত্ত করার চেষ্টার সময় পুলিশের তিন সদস্য আহত হন। একপর্যায়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ ৩৫ থেকে ৪০টি শটগানের ফাঁকা গুলি ছোড়ে। আহত ব্যক্তিদের বেড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, পাবনা সদর হাসপাতালসহ বিভিন্ন চিকিৎসা কেন্দ্রে ভর্তি করা হয়।
এ ব্যাপারে বেড়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোতালেব হোসেন গতকাল সন্ধ্যা ছয়টার দিকে মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেন, সংঘর্ষে তিনজন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। এ কারণে ইতিমধ্যে পুলিশ বাদী হয়ে থানায় এ ঘটনায় একটি মামলা করেছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে অন্তত আটজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের জন্য এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েনের পাশাপাশি অভিযান চলছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন