কিশোরগঞ্জের ভৈরবে একটি বেসরকারি ব্যাংকে ঢুকে ব্যাংকের এক নারী কর্মকর্তার শ্লীলতাহানির চেষ্টা করেছেন এক তরুণ। গত রোববার ওই ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ওই তরুণকে তিন মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

দণ্ডপ্রাপ্তের নাম শাহাদাত (২৫)। তিনি ভৈরব পৌর শহরের ভৈরবপুর উত্তরপাড়া মহল্লার বাসিন্দা।

উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা জানান, রোববার দুপুরে ব্যাংকে কাজ করছিলেন ওই কর্মকর্তা। এ সময় শাহাদাত ব্যাংকে এসে ওই নারীর কাছে নিজেকে ব্যাংকের গ্রাহক বলে পরিচয় দেন। তারপর লেনদেনের বিষয়ে জরুরি কথা বলবেন জানিয়ে ওই নারীকে আসন থেকে উঠে আসতে বলেন। শাহাদাতের অনুরোধে ওই কর্মকর্তা আসন থেকে উঠে আসেন। এ সময় মেয়েটির শ্লীলতাহানির চেষ্টা করেন শাহাদাত। উপস্থিত গ্রাহক ও সহকর্মীরা ওই কর্মকর্তাকে রক্ষা করেন। শাহাদাতকে আটক করে পুলিশে দেওয়া হয়। রোববার সন্ধ্যায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এ সাজা দেন।

আদালতের বিচারক ইউএনও জেসমিন আক্তার বলেন, শাহাদাত দোষ স্বীকার করেছে। তা ছাড়া ক্লোজড সার্কিট ক্যামেরায় ঘটনার প্রমাণ মেলায় ওই সাজা দেওয়া হয়েছে। ব্যাংক কর্তৃপক্ষ জানায়, তাদের ব্যাংকে শাহাদাতের কোনো হিসাব নম্বর নেই।

একটি প্রতিষ্ঠানে ঢুকে প্রকাশ্যে কর্মকর্তার শ্লীলতাহানির চেষ্টার কারণ জানতে চাইলে শাহাদাত বলেন, ‘কাজে এসেছিলাম। মনে হয়েছে তাই করেছি।’ ওই কর্মকর্তার সঙ্গে আগে পরিচয় ছিল কি না—এমন প্রশ্নের জবাবে বলেন, চলার পথে দেখেছিলেন। কিন্তু কোনো দিন কথা হয়নি।

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন