ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় চাঁদা না পেয়ে ফাঁকা গুলি

বিজ্ঞাপন
default-image

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলায় মুখোশধারী দুই যুবক অস্ত্র নিয়ে একটি বাড়িতে ঢুকে এক ব্যবসায়ীর কাছে ১৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। চাঁদা না পেয়ে তাঁরা দুটি ফাঁকা গুলি ছোড়েন। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নবীনগর বাজারের ব্যবসায়ী রফিকুল ইসলামের মধ্যপাড়ার বাসায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় নবীনগর থানায় লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। 

ব্যবসায়ী রফিকুল ইসলাম বলেন, ৯ মে ছোটন পরিচয় দিয়ে একজন মুঠোফোনে তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করেন। ওই ব্যক্তি মালয়েশিয়া থেকে ফোন দিয়েছেন বলে তাঁকে জানান। ছোটন তাঁকে বলেন, নবীনগরের বড় বড় আলোচিত সন্ত্রাসী ঘটনা তিনি (ছোটন) ঘটিয়েছেন। বর্তমানে করোনা পরিস্থিতির কারণে তিনি অর্থসংকটে পড়েছেন। তিনি দুজন লোক পাঠাবেন। তাঁদের নগদ ১৫ লাখ টাকা দিয়ে দিতে বলেন রফিকুলকে। এ ঘটনাটি তিনি (রফিকুল) দু-একজন আত্মীয়কে জানান। স্বজনেরা তাঁকে আশ্বস্ত করে বলেন, কেউ হয়তো মজা করে এসব বলেছে।

রফিকুল আরও বলেন, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় মুখোশ পরা ২৫ থেকে ৩০ বছর বয়সী দুই যুবক তাঁকে এসে বলেন, ছোটন ভাই তাঁদের পাঠিয়েছেন। দ্রুত ১৫ লাখ টাকা দিতে হবে। এত টাকা নেই বলতেই ওই দুই যুবক কোমর থেকে পিস্তল বের করে তাঁর কপালে ধরেন। এ সময় পরিবারের লোকজন চিৎকার দিলে ওই দুই অস্ত্রধারী যুবক দুবার ফাঁকা গুলি ছোড়েন। গুলি দুটি ঘরের টিভিতে গিয়ে লাগে। এরপর তাঁরা পালিয়ে যান।

রফিকুল বলেন, ‘আমি ও আমার পরিবার এখন চরম আতঙ্কের মধ্যে আছি। নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। থানা–পুলিশকে এসব জানালে, আমাকে হত্যা করা হবে বলে হুমকিও দিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা।’

নবীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রণজিৎ রায় বলেন, রাতেই তাঁরা ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করেছেন। সব আলামত জব্দ করেছেন। জড়িত ব্যক্তিদের গ্রেপ্তার করেত ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নির্দেশে পুলিশের একাধিক দল কাজ করছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন