গৃহবধূ অর্পা আক্তারের ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন প্রভাবিত করার অভিযোগ করেছেন তাঁর মা সাহিদা আক্তার। মেয়ের মৃত্যুর ঘটনার সুষ্ঠু বিচারের জন্য তিনি প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
সাহিদা আক্তার গতকাল সোমবার জাতীয় প্রেসক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ হস্তক্ষেপ কামনা করেন। অর্পা আক্তার চলতি বছরের জুনে গাজীপুরের জয়দেবপুরে স্বামীর বাড়িতে মারা যান। এ ঘটনায় সংশ্লিষ্ট থানায় মামলা করা হয়। এ পর্যন্ত দুই দফায় তাঁর লাশের ময়নাতদন্ত হয়েছে। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, দুটি ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনেই তাঁর মৃত্যুকে আত্মহত্যাজনিত বলে উল্লেখ করা হয়েছে।
সংবাদ সম্মেলনে সাহিদা আক্তার অভিযোগ করেন, গত জুনে অর্পা আক্তারকে জয়দেবপুরে স্বামীর বাড়িতে হত্যা করা হয়। স্বামী আবুল হোসেন ও তাঁর পরিবার অর্পাকে হত্যা করে। কিন্তু অভিযুক্ত ব্যক্তিরা অর্থের বিনিময়ে ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন নিজেদের পক্ষে নিয়েছেন। ফলে তাঁদের আশঙ্কা, তাঁরা সন্তান হত্যার ন্যায্য বিচার পাবেন না।
সংবাদ সম্মেলনে সাহিদা আক্তার আরও বলেন, আড়াই বছর আগে আবুল হোসেনের সঙ্গে অর্পার বিয়ে হয়। আবুল হোসেন সৌদি আরবপ্রবাসী। ঘটনার দুই মাস আগে তিনি দেশে আসেন। স্বামীর পরকীয়ার কথা জেনে ফেলার জের ধরেই অর্পাকে হত্যা করা হয়।

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন