default-image

মাগুরা সদর উপজেলার লক্ষিকান্দর গ্রামে নিজ বাড়ির সামনে থেকে এক যুবককে তুলে নেওয়া হয়েছে। পরিবারের সদস্যদের ধারণা, তাঁকে অপহরণ করা হয়েছে। ওই যুবকের নাম ভরত বিশ্বাস। তিনি ওই গ্রামের রতন বিশ্বাসের ছেলে।

রোববার সন্ধ্যা ৬টার দিকে নিজ বাড়ির সামনে থেকে একটি মাইক্রোবাসে তাঁকে তুলে নেওয়া হয়েছে বলে দাবি করছে পরিবার। আজ সোমবার এ অভিযোগে অজ্ঞাত ব্যক্তিদের আসামি করে সদর থানায় অপহরণের মামলা করেছেন নিখোঁজ যুবকের পরিবারের সদস্যরা।

ভরত বিশ্বাসের স্ত্রী মুক্তা বিশ্বাস বলেন, ‘রোববার সন্ধ্যা ৬টার দিকে আমরা দুজনে বাড়ির সামনে দাঁড়িয়ে কথা বলছিলাম। এ সময় ধূসর রঙের একটি মাইক্রোবাস আমাদের সামনে এসে দাঁড়ায়। গাড়ি থেকে দুজন লোক নেমে আমার স্বামীকে টেনেহিঁচড়ে গাড়িতে ওঠায়। এ সময় স্বামীকে গাড়ি থেকে নামাতে আমিও গাড়িতে উঠে পড়ি। তখন ওরা আমাকে ধাক্কা দিয়ে রাস্তার ওপর ফেলে দিয়ে দ্রুতগতিতে পালিয়ে যায়। এরপর থেকে আমার স্বামীর ব্যবহৃত মুঠোফোনটি বন্ধ রয়েছে।’

ঘটনার পরপরই সদর থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন পরিবারের সদস্যরা। সোমবার একই অভিযোগে মামলা হয়েছে।

মাগুরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জয়নাল আবেদিন জানান, নিখোঁজ ভরত বিশ্বাস শহরের একটি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে কর্মচারী হিসেবে কাজ করছিলেন। খবর পাওয়ার পর থেকেই তাঁকে উদ্ধারের জোর চেষ্টা চলছে। প্রাথমিকভাবে এটি অপহরণের ঘটনা বলেই ধারণা করা হচ্ছে। তবে ঠিক কী কারণে তাঁকে তুলে নেওয়া হয়েছে, সে বিষয়ে পরিষ্কার হওয়া যায়নি।

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন