default-image

কিশোরগঞ্জের তাড়াইলে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে কৃষক আশিদ মিয়া হত্যা মামলায় একজনকে ফাঁসি ও দুজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। আজ মঙ্গলবার দুপুরে কিশোরগঞ্জের প্রথম অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মুহাম্মদ আবদুর রহিম এ রায় প্রদান করেন। এ সময় তিন আসামির প্রত্যেককে এক লাখ টাকা করে আর্থিক জরিমানারও আদেশ দেন বিচারক।

ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামির নাম আবদুল্লাহ। যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত ব্যক্তিরা হলেন আবদুল ওয়াহাব ও মারফত আলী। রায় ঘোষণার সময় তিনজনই কাঠগড়ায় উপস্থিত ছিলেন। এ সময় অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় আবু জাহের ও নজরুল ইসলাম নামের দুজনকে বেকসুর খালাস দেন আদালত।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১০ সালের ৩০ অক্টোবর মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে তাড়াইল উপজেলার জাওয়ার ইউনিয়নের বটতলা এলাকায় শিশুদের মধ্যে ঝগড়া বাধে। এর জের ধরে বড়রা ঝগড়ায় জড়িয়ে পড়েন। এ সময় আসামিরা একই এলাকার রেজু মিয়ার ছেলে কৃষক আশিদ মিয়াকে পিটিয়ে হত্যা করেন। এ ঘটনায় পরদিন নিহতের ভাই আনিছ মিয়া বাদী হয়ে পাঁচজনের নামে তাড়াইল থানায় একটি হত্যা মামলা করেন।

পুলিশ তদন্ত শেষে ২০১১ সালের ৩১ মার্চ আসামিদের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে। রাষ্ট্রপক্ষে এপিপি আবু সাঈদ ইমাম ও আসামিপক্ষে আইনজীবী দিলোয়ারা মোমতাজ এ মামলা পরিচালনা করেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0