default-image

কিশোরগঞ্জের ভৈরবে জব্দ করা মাদক আত্মসাতের চেষ্টার অভিযোগে এক উপপরিদর্শককে (এসআই) প্রত্যাহার করে পুলিশ লাইনসে সংযুক্ত করা হয়েছে। আজ বুধবার সকালে তাঁকে কিশোরগঞ্জ পুলিশ লাইনসে সংযুক্ত করা হয়। ওই এসআইসের নাম হানিফ সরকার। কিশোরগঞ্জের পুলিশ সুপার মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ সাংবাদিকদের এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ সূত্র জানায়, হানিফ সরকার ভৈরব থানায় যোগ দেন চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে। সড়কের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ভৈরব থানায় ইমার্জেন্সি ডিউটি চালু রয়েছে। এটি হয় দুই পালায়। প্রথম পালা সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত। পরেরটি রাত ৮টা থেকে পরের দিন সকাল ৮টা পর্যন্ত। ডিউটিতে একজন এসআই পদমর্যাদার কর্মকর্তা থাকেন। গত সোমবার সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টার ডিউটিতে নেতৃত্ব দেন হানিফ সরকার। তাঁর সঙ্গে চারজন কনস্টেবল ছিলেন। বেলা আড়াইটার দিকে তাঁরা যান ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের সৈয়দ নজরুল ইসলাম সেতুর ভৈরব প্রান্তে। সেখানে গিয়ে কয়েকটি গাড়িতে তল্লাশি চালানো হয়। তিনটার দিকে একটি বাস থেকে কিছু গাঁজা উদ্ধার করা হয়।

বিজ্ঞাপন

পুলিশ বলছে, উদ্ধার করা গাঁজার পরিমাণ আট কেজি। কিন্তু এসআই হানিফ সরকার জব্দ গাঁজার পরিমাণ কম দেখাচ্ছেন বলে পুলিশ সুপারের (এসপি) কাছে অভিযোগ যায়। থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শাহিনকে ঘটনাস্থলে যাওয়ার নির্দেশ দেন এসপি। ওসি শাহিন ঘটনাস্থলে গিয়ে অভিযোগের সত্যতা পান। পরে গতকাল মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে হানিফকে প্রত্যাহার করা হয়।

অভিযোগ বিষয়ে জানতে আজ সকালে মুঠোফোনে কথা হয় হানিফ সরকারের সঙ্গে। তিনি ‘পরিস্থিতির শিকার’ বলে মন্তব্য করেন।

মন্তব্য করুন