default-image

মানিকগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের এক নেতা ও তাঁর দুই সহযোগীকে হেরোইনসহ গ্রেপ্তার করেছে গোলড়া হাইওয়ে থানার পুলিশ। বুধবার রাতে তাঁদের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে ঢাকার ধামরাই থানায় মামলা হয়েছে।

এই তিনজন হলেন জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি শামীম হোসেন এবং তাঁর দুই সহযোগী রবিউল আওয়াল ও আলমগীর হোসেন। তাঁদের বাড়ি মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে।

মানিকগঞ্জের গোলড়া হাইওয়ে থানা সূত্রে জানা গেছে, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বুধবার বিকেলে ঢাকার ধামরাই উপজেলার বালিথা এলাকায় ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে মোটরসাইকেলসহ ছাত্রলীগের নেতা শামীমসহ তিনজনকে আটক করে হাইওয়ে থানার পুলিশ। এ সময় তাঁদের দেহ তল্লাশি করা হয়। রবিউলের কাছে পাঁচ গ্রাম হেরোইন পাওয়া যায়। এরপর তাঁদের আটক করে গোলড়া হাইওয়ে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়।

গোলড়া হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুল ইসলাম বলেন, বুধবার রাতে তাঁদের ধামরাই থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।

ধামরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দীপক চন্দ্র সাহা বলেন, এ ঘটনায় বুধবার রাতে ওই তিনজনের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে থানায় মামলা হয়েছে। দুপুরে তাঁদের ঢাকার জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে পাঠানো হয়েছে।

যোগাযোগ করা হলে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি কাজী রাজু আহামেদ বলেন, মাদক সেবনকারী বা মাদক ব্যবসায়ী ছাত্রলীগে স্থান হবে না। ঘটনার বিষয়ে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে জানানো হবে। অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেলে সংগঠনের পক্ষ থেকে তাঁদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0