default-image

করোনাসহ বিভিন্ন একাডেমিক পরীক্ষার ভুয়া সনদ বিক্রির অভিযোগে কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলার চান্দিনা বাজারের বিসমিল্লাহ এন্টারপ্রাইজ নামের একটি দোকানের মালিক মোরশেদ আলমকে গ্রেপ্তার করেছেন র‌্যাব-১১ ক্রাইম প্রিভেনশন কোম্পানি কুমিল্লার সদস্যরা। আজ রোববার দুপুরে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়।

অভিযানে করোনার ভুয়া প্রতিবেদন, বিভিন্ন পরীক্ষার জাল সনদ, প্রশংসাপত্র, জাতীয় পরিচয়পত্র, সিলমোহর জব্দ করা হয়। এ ছাড়া একটি কম্পিউটার, কালার প্রিন্টার, স্ক্যানার, ইন্টারনেট মডেম, তিনটি পেনড্রাইভ, দুটি মোবাইল ফোন ও প্রতারণার নগদ অর্থ জব্দ করা হয়।

র‌্যাব-১১ জানায়, মোরশেদের (৩২) বাড়ি জেলার দেবীদ্বার উপজেলার জাফরাবাদ গ্রামে। মোরশেদ সারা বিশ্বে করোনাভাইরাস মহামারি আকার ধারণ করার পর থেকে করোনার সনদ দেওয়ার নামে লোকজনের সঙ্গে প্রতারণা করে আসছিলেন। করোনার প্রতিটি সনদ তৈরির জন্য তিনি বিভিন্ন অঙ্কের অর্থ গ্রহণ করে আসছিলেন। এ ছাড়া বিভিন্ন একাডেমিক পরীক্ষার জাল সনদ, প্রশংসাপত্র, জাতীয় পরিচয়পত্র ও জাল সিলমোহর তৈরি করে প্রতারণা করে আসছিলেন তিনি। এ ঘটনায় চান্দিনা থানায় মামলা হয়েছে।

র‌্যাব-১১ অধিনায়ক লে. কর্নেল খন্দকার সাইফুল ইসলাম বলেন, সুনির্দিষ্ট অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে মোরশেদের ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে অভিযান পরিচালনা করা হয়। ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানটিতে করোনা প্রতিবেদনসহ বিভিন্ন পর্যায়ের সনদ তৈরি করে বিক্রি করা হতো।

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন