বাগেরহাটের মোল্লাহাটে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের বন্দুকের গুলিতে রুবেল কাজী (২৬) নামের এক যুবক নিহত হয়েছেন। পুলিশ তাঁর লাশ উদ্ধার করেছে।

আজ শনিবার রাত পৌনে আটটার দিকে উপজেলার সদর ইউনিয়নের মোল্লারকুল গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। রুবেল মোল্লারকুল গ্রামের লায়েক কাজীর ছেলে।

মোল্লাহাট উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহিনুল আলম জানান, আজ সকালে মোল্লারকুল গ্রামের হাফিজুর রহমান খাকির ছেলে মুহিদ ও ফরিদ খাকির ছেলে খালিদের মধ্যে ব্যাডমিন্টন খেলা নিয়ে কথা–কাটাকাটি হয়। এ ঘটনার জের ধরে দুপুর ১২টার দিকে হাফিজুর তাঁর লোকজন নিয়ে ফরিদ খাকির বাড়িতে হামলা চালিয়ে দুটি ঘর ভাঙচুর করে ফিরে যান। এ ঘটনার জের ধরে সন্ধ্যা সাতটার দিকে ফরিদ খাকি তাঁর লোকজন নিয়ে নিজ বাড়িতে এক সভায় বসেন। এই খবর জানতে পেরে হাফিজুল তাঁর লোকজন নিয়ে আবারও হামলা চালান। এ সময় বন্দুক ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে উভয় পক্ষ সংঘর্ষ জড়িয়ে পড়ে। এতে গুলিবিদ্ধ হন রুবেল।

মোল্লাহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আ ন ম খায়রুল আনাম জানান, মোল্লারকুল গ্রামের হাফিজুল খাকি ও ফরিদ খাকির মধ্যে জমি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। এর জের ধরে সংঘর্ষ বাধলে হাফিজুল তাঁর ভাই মোশারেফ খাকির লাইসেন্স করা বন্দুক দিয়ে গুলি চালায়। এতে ফরিদ খাকির পক্ষের রুবেল গুলিবিদ্ধ হন। পরে স্থানীয় লোকজন তাঁকে মোল্লাহাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য নিয়ে এলে চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় গুলিবিদ্ধ হন শাহ আলম কাজী। তাঁকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন।

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন