বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

মামলার নথিতে বলা হয়, তানিয়া ও আল আমিন দম্পতি কামরাঙ্গীরচর এলাকায় বসবাস করতেন। যৌতুকের জন্য ২০১৮ সালের ১৮ মার্চ তানিয়াকে চাকু দিয়ে হত্যা করেন স্বামী আল আমিন। ওই ঘটনায় তানিয়ার মা আনোয়ারা বাদী হয়ে আল আমিনের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ১১-ক ধারায় কামরাঙ্গীরচর থানায় মামলা করেন।

২০১৮ সালের ১১ জুন আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেয় পুলিশ। ওই বছরের ৪ অক্টোবর আদালত আল আমিনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন। এই মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর আল আমিন ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন।

রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনাকারী(পিপি) ফোরকান মিঞা বলেন, আল আমিনের স্বভাবচরিত্র ভালো নয়। বিয়ের পর থেকে যৌতুক দাবি করে আসছিলেন। যৌতুক না পেয়ে তানিয়াকে নৃশংসভাবে চাকু দিয়ে হত্যা করেন। রাষ্ট্রপক্ষ থেকে এই মামলায় ১৫ জন সাক্ষীকে আদালতে হাজির করা হয়।

মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন